ঢাকা ১০:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ
মৌলভীবাজার মনু নদীর পানি নিয়ে আতঙ্ক না হওয়ার পরামর্শ শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ভোট গ্রহন চলছে ছড়া ও খালের পাড় ভেঙে বিভিন্ন এলাকা ও ফসলাদির জমি প্লাবিত মৌলভীবাজারে ভিটামিন এ ক্যাম্পসুল খাওয়ানো হবে  ২১২৬৪৮ জন শিশুকে বিমান বাহিনীর প্রধান হলেন হাসান মাহমুদ খাঁন মৌলভীবাজারে মাদক বিরোধী সেমিনার এসএসসি ২০২৪ ইং জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদেরকে সোনার বাংলা আদর্শ ক্লাবের সংবর্ধনা প্রদান মৌলভীবাজারে অস্ত্র ও বিপুল পরিমান মাদকসহ একজন আটক  ৩০মে ন‍্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন মৌলভীবাজার এর উদ‍্যোগে ফ্রি হার্ট ক‍্যাম্প কলেজের একযুগ পূর্তি উপলক্ষ্যে বিশ্বায়ন-৩ এর প্রকাশনা উৎসব

অনুমতি দিচ্ছে দুবাই বয়স ২১ হলেই মদ পানের

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১২:০৪:৫৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪
  • / ১২১ বার পড়া হয়েছে

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বেশিরভাগ অংশেই এখন আর অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় তথা মদ পান করা নিষিদ্ধ নয়। বেশকিছু কঠোর বিধিনিষেধ থাকলেও মদের লাইসেন্স পাওয়া সহজ করা হয়েছে। লাগছে না কোনো টাকাও।

২১ বছর হলেই আবেদন করা যাচ্ছে লাইসেন্সের জন্য। ঘরে বসে অনলাইনে কিংবা নিবন্ধিত কোনো দোকানে গিয়েও আবেদনের সুযোগ রয়েছে। আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হলে এবং লাইসেন্স পাওয়ার আগেই মদ কিনতে পারবেন যে কেউ। খবর খালিজ টাইমসের।

দেশটির প্রধান শহর দুবাইতে ২০২৩ সালে অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় কেনার বিষয়ে আইন অনেকটাই শিথিল করা হয়। সে সময় মদের ওপর থেকে ৩০ শতাংশ ট্যাক্স প্রত্যাহার করে নেয় কর্তৃপক্ষ। এর ফলে এসব পানীয় পর্যটক ও দেশটির নাগরিকদের কাছে আরও সহজলভ্য হয়ে ওঠে।

মদ কেনা ও গ্রহণ করার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধের মধ্যে রয়েছে-

বয়সসীমা: দুবাইসহ আরব আমিরাতের সবখানেই অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় ক্রয় ও পানের ক্ষেত্রে অন্তত ২১ বছর বয়স হতে হবে। এর কম বয়সী কেউ মদ গ্রহণ করতে পারবে না।

মদ পানের অনুমোদিত স্থান: দুবাইতে যেখানে সেখানে অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় গ্রহণ করার অনুমতি নেই। লাইসেন্স থাকলেও মদ পানকারীকে অবশ্যই সুনির্দিষ্ট জায়গায় সেটি গ্রহণ করতে হবে। নইলে জেল জরিমানার মুখোমুখি হতে হবে।

রেস্টুরেন্টে: বৈধ অ্যালকোহল লাইসেন্স রয়েছে এমন রেস্তোরাঁ বা লাউঞ্জেই কেবল অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় সেবন করা যাবে। দেশটিতে প্রকাশ্যে অ্যালকোহল পান করা নিষিদ্ধ।

বাসাবড়িতে: কোনো ব্যক্তির যদি অ্যালকোহল লাইসেন্স থাকে তাহলে নিজের বাড়িতে বা থাকার জায়গায় অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় গ্রহণ করতে পারবেন।

মদ্যপ অবস্থায় ড্রাইভিং করলে জেল-জরিমানা: সংযুক্ত আরব আমিরাতে মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালানো নিষিদ্ধ। এই আইন লঙ্ঘনকারীকে জরিমানা করা হবে অথবা আদালত সিদ্ধান্ত দেবেন। শুধু তাই নয়, ড্রাইভিং লাইসেন্সে ২৩টি কালো পয়েন্ট যুক্ত হবে। তার গাড়িটি ৬০ দিনের জন্য বাজেয়াপ্তও করবে সরকার।

২০২২ সালে মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর দায়ে এক ব্রিটিশ প্রবাসীকে ১ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। একইসঙ্গে তার গাড়িটি ৩০ দিনের জন্য বাজেয়াপ্ত করা হয়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, অ্যালকোহল পান করে গাড়ি চালানো, উল্টো পথে গাড়ি চালানো এবং সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি করা।

মদ কেনা: যদি কেউ দুবাইতে অ্যালকোহল কিনতে চায় তাহলে অবশ্যই লাইসেন্স থাকতে হবে। তবে এই লাইসেন্স পাওয়া এখন খুব সহজ করা হয়েছে। কারণ, এখন অনলাইনেও মদের লাইসেন্সের জন্য আবেদন করা যায়। অথবা কেউ চাইলে বৈধ কোনো অ্যালকোহলের দোকানে গিয়ে অফলাইনে আবেদন করে বিনামূল্যে লাইসেন্স নিতে পারেন। দেশটির নাগরিকদের জন্য জাতীয় পরিচয় পত্র দিতে হবে। আবেদন করার পরপরই মদ কিনতে পারবেন যে কেউ।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

অনুমতি দিচ্ছে দুবাই বয়স ২১ হলেই মদ পানের

আপডেট সময় ১২:০৪:৫৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বেশিরভাগ অংশেই এখন আর অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় তথা মদ পান করা নিষিদ্ধ নয়। বেশকিছু কঠোর বিধিনিষেধ থাকলেও মদের লাইসেন্স পাওয়া সহজ করা হয়েছে। লাগছে না কোনো টাকাও।

২১ বছর হলেই আবেদন করা যাচ্ছে লাইসেন্সের জন্য। ঘরে বসে অনলাইনে কিংবা নিবন্ধিত কোনো দোকানে গিয়েও আবেদনের সুযোগ রয়েছে। আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হলে এবং লাইসেন্স পাওয়ার আগেই মদ কিনতে পারবেন যে কেউ। খবর খালিজ টাইমসের।

দেশটির প্রধান শহর দুবাইতে ২০২৩ সালে অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় কেনার বিষয়ে আইন অনেকটাই শিথিল করা হয়। সে সময় মদের ওপর থেকে ৩০ শতাংশ ট্যাক্স প্রত্যাহার করে নেয় কর্তৃপক্ষ। এর ফলে এসব পানীয় পর্যটক ও দেশটির নাগরিকদের কাছে আরও সহজলভ্য হয়ে ওঠে।

মদ কেনা ও গ্রহণ করার ক্ষেত্রে বিধিনিষেধের মধ্যে রয়েছে-

বয়সসীমা: দুবাইসহ আরব আমিরাতের সবখানেই অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় ক্রয় ও পানের ক্ষেত্রে অন্তত ২১ বছর বয়স হতে হবে। এর কম বয়সী কেউ মদ গ্রহণ করতে পারবে না।

মদ পানের অনুমোদিত স্থান: দুবাইতে যেখানে সেখানে অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় গ্রহণ করার অনুমতি নেই। লাইসেন্স থাকলেও মদ পানকারীকে অবশ্যই সুনির্দিষ্ট জায়গায় সেটি গ্রহণ করতে হবে। নইলে জেল জরিমানার মুখোমুখি হতে হবে।

রেস্টুরেন্টে: বৈধ অ্যালকোহল লাইসেন্স রয়েছে এমন রেস্তোরাঁ বা লাউঞ্জেই কেবল অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় সেবন করা যাবে। দেশটিতে প্রকাশ্যে অ্যালকোহল পান করা নিষিদ্ধ।

বাসাবড়িতে: কোনো ব্যক্তির যদি অ্যালকোহল লাইসেন্স থাকে তাহলে নিজের বাড়িতে বা থাকার জায়গায় অ্যালকোহলযুক্ত পানীয় গ্রহণ করতে পারবেন।

মদ্যপ অবস্থায় ড্রাইভিং করলে জেল-জরিমানা: সংযুক্ত আরব আমিরাতে মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালানো নিষিদ্ধ। এই আইন লঙ্ঘনকারীকে জরিমানা করা হবে অথবা আদালত সিদ্ধান্ত দেবেন। শুধু তাই নয়, ড্রাইভিং লাইসেন্সে ২৩টি কালো পয়েন্ট যুক্ত হবে। তার গাড়িটি ৬০ দিনের জন্য বাজেয়াপ্তও করবে সরকার।

২০২২ সালে মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর দায়ে এক ব্রিটিশ প্রবাসীকে ১ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। একইসঙ্গে তার গাড়িটি ৩০ দিনের জন্য বাজেয়াপ্ত করা হয়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, অ্যালকোহল পান করে গাড়ি চালানো, উল্টো পথে গাড়ি চালানো এবং সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতি করা।

মদ কেনা: যদি কেউ দুবাইতে অ্যালকোহল কিনতে চায় তাহলে অবশ্যই লাইসেন্স থাকতে হবে। তবে এই লাইসেন্স পাওয়া এখন খুব সহজ করা হয়েছে। কারণ, এখন অনলাইনেও মদের লাইসেন্সের জন্য আবেদন করা যায়। অথবা কেউ চাইলে বৈধ কোনো অ্যালকোহলের দোকানে গিয়ে অফলাইনে আবেদন করে বিনামূল্যে লাইসেন্স নিতে পারেন। দেশটির নাগরিকদের জন্য জাতীয় পরিচয় পত্র দিতে হবে। আবেদন করার পরপরই মদ কিনতে পারবেন যে কেউ।