ঢাকা ০৫:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইয়াকুব-তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের নতুন অধ্যক্ষ

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৮:১৫:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪
  • / ১৬০৯ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোটারঃ ০৪ বছর পর কুলাউড়া ইয়াকুব-তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে নয়া অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেছেন অধ্যক্ষ মোঃ সিপার উদ্দিন আহমদ ।

সোমবার (৮ জুলাই ) সকাল ১১ টা আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি যোগদান করেন। এ সময় কলেজের শিক্ষকরা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছার মাধ্যমে বরণ করে নেন।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কলেজ বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এমদাদুল ইসলাম ভুট্ট ও শিরিন বেগম,কলেজ গভনিং বর্ডির সদস্য বরমচাল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ফজলুল হক ও গভনিং বডির সদস্য কুলাউড়া প্রেসক্লাব সাধারন সম্পাদক মোঃ খালেদ পারভেজ বখশ, কুলাউড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল মতিন, পৌরসভার ইঞ্জিনিয়ার মোঃ কামরুল ইসলামসহ ইয়াকুব – তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষক, শিক্ষিকা -কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কাছুর কাপন গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম আলহাজ্ব মোঃ ছমরু মিয়া এবং মাতার নাম আমিরুন নেছা বেগম। ব্যক্তি জীবনে তিনি ২ সন্তানের জনক। তিনি ১৯৯৭ সালে ঢাকা কলেজ থেকে প্রানিবিদ্যা বিষয় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ২০০২ সালে ভাটেরা কলেজে কম্পিউটার শিক্ষা বিষয়ে প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন। ২০১২ সালে কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজে আইসিটি বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করে পরে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন। এরপর ২০১৭ সাল থেকে ভাটেরা ডিগ্রি কলেজটির সুনামের সাথে অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

 

ইয়াকুব -তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে যোগদান প্রসঙ্গে বলেন, আলহামদুল্লিাহ। তিনি জানান শিক্ষক-কর্মচারীরা আন্তরিক হলে এ প্রতিষ্ঠানকে সেরা প্রতিষ্ঠানে রূপদান করা সম্ভব হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের ভাল রেজাল্ট, ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি বৃদ্ধি, কলেজের সৌন্দর্য, কলেজ অবকাঠামো উন্নয়ন জন্য কাজ করবেন। তাছাড়া শিক্ষক- কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের কল্যাণে সর্বোচ্চ কাজ করে যাবেন।

ইয়াকুব – তাজুল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের কয়েকজন শিক্ষক জানান, অনেক দিন থেকেই আমরা প্রতিক্ষায় ছিলাম কলেজে নতুন একজন অধ্যক্ষ আসবেন। অবশেষে আমাদের সেই প্রতিক্ষার অবসান ঘটেছে।

উল্লেখ্য ১৯৯৫ সালে শুরুতেই কলেজ প্রতিষ্ঠাকালীন অধ্যক্ষ এর দায়িত্ব নেন প্রভাষক মোঃ এমদাদুল ইসলাম ভুট্টু । পরবর্তিতে ১৯৯৭ সালে মোঃ আব্দুর রউফ ইযাকুব-তাজুল মহিলা কলেজের নয়া অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন। দীর্ঘ দিন কর্মরত অধ্যক্ষ থাকাকালীন গত ১৫ ই মার্চ ২০২০ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে অধ্যক্ষ আব্দুর রউফ মৃত্যু বরন করেন। এর পর দীর্ঘ সময় কলেজের উপাধ্যক্ষ মোঃ এমদাদুল ইসলাম ভুট্টু ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে কলেজের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। এরই মধ্যে নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগ এর জন্য পএিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হলে সিপার উদ্দিন আহমদসহ ৪জন আবেদন করলে ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে অধ্যক্ষ হিসেবে সিপার উদ্দিন আহমদ প্রথম হন। এরই মধ্যে ৩০ জুন ২০২৪ এমদাদুল ইসলাম ভুট্টু অবসরে চলে গেলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পান সিনিয়র সহকারি অধ্যাপক শিরিন বেগম। এদিকে নিয়োগপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ ০৮ জুলাই যোগদান করেন।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

ইয়াকুব-তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের নতুন অধ্যক্ষ

আপডেট সময় ০৮:১৫:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪

স্টাফ রিপোটারঃ ০৪ বছর পর কুলাউড়া ইয়াকুব-তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে নয়া অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেছেন অধ্যক্ষ মোঃ সিপার উদ্দিন আহমদ ।

সোমবার (৮ জুলাই ) সকাল ১১ টা আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি যোগদান করেন। এ সময় কলেজের শিক্ষকরা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছার মাধ্যমে বরণ করে নেন।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কলেজ বিদায়ী ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এমদাদুল ইসলাম ভুট্ট ও শিরিন বেগম,কলেজ গভনিং বর্ডির সদস্য বরমচাল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ফজলুল হক ও গভনিং বডির সদস্য কুলাউড়া প্রেসক্লাব সাধারন সম্পাদক মোঃ খালেদ পারভেজ বখশ, কুলাউড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল মতিন, পৌরসভার ইঞ্জিনিয়ার মোঃ কামরুল ইসলামসহ ইয়াকুব – তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষক, শিক্ষিকা -কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার কাছুর কাপন গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম আলহাজ্ব মোঃ ছমরু মিয়া এবং মাতার নাম আমিরুন নেছা বেগম। ব্যক্তি জীবনে তিনি ২ সন্তানের জনক। তিনি ১৯৯৭ সালে ঢাকা কলেজ থেকে প্রানিবিদ্যা বিষয় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ২০০২ সালে ভাটেরা কলেজে কম্পিউটার শিক্ষা বিষয়ে প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন। ২০১২ সালে কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজে আইসিটি বিভাগে প্রভাষক হিসেবে যোগদান করে পরে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন। এরপর ২০১৭ সাল থেকে ভাটেরা ডিগ্রি কলেজটির সুনামের সাথে অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

 

ইয়াকুব -তাজুল মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে যোগদান প্রসঙ্গে বলেন, আলহামদুল্লিাহ। তিনি জানান শিক্ষক-কর্মচারীরা আন্তরিক হলে এ প্রতিষ্ঠানকে সেরা প্রতিষ্ঠানে রূপদান করা সম্ভব হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের ভাল রেজাল্ট, ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি বৃদ্ধি, কলেজের সৌন্দর্য, কলেজ অবকাঠামো উন্নয়ন জন্য কাজ করবেন। তাছাড়া শিক্ষক- কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের কল্যাণে সর্বোচ্চ কাজ করে যাবেন।

ইয়াকুব – তাজুল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের কয়েকজন শিক্ষক জানান, অনেক দিন থেকেই আমরা প্রতিক্ষায় ছিলাম কলেজে নতুন একজন অধ্যক্ষ আসবেন। অবশেষে আমাদের সেই প্রতিক্ষার অবসান ঘটেছে।

উল্লেখ্য ১৯৯৫ সালে শুরুতেই কলেজ প্রতিষ্ঠাকালীন অধ্যক্ষ এর দায়িত্ব নেন প্রভাষক মোঃ এমদাদুল ইসলাম ভুট্টু । পরবর্তিতে ১৯৯৭ সালে মোঃ আব্দুর রউফ ইযাকুব-তাজুল মহিলা কলেজের নয়া অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন। দীর্ঘ দিন কর্মরত অধ্যক্ষ থাকাকালীন গত ১৫ ই মার্চ ২০২০ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে অধ্যক্ষ আব্দুর রউফ মৃত্যু বরন করেন। এর পর দীর্ঘ সময় কলেজের উপাধ্যক্ষ মোঃ এমদাদুল ইসলাম ভুট্টু ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে কলেজের দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। এরই মধ্যে নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগ এর জন্য পএিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হলে সিপার উদ্দিন আহমদসহ ৪জন আবেদন করলে ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে অধ্যক্ষ হিসেবে সিপার উদ্দিন আহমদ প্রথম হন। এরই মধ্যে ৩০ জুন ২০২৪ এমদাদুল ইসলাম ভুট্টু অবসরে চলে গেলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পান সিনিয়র সহকারি অধ্যাপক শিরিন বেগম। এদিকে নিয়োগপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ ০৮ জুলাই যোগদান করেন।