ঢাকা ০৮:৪৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কাওয়াদীঘী হাওরের জলাবদ্ধতা দ্রুত নিরসন হবে… জেলা প্রশাসক

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১২:১৪:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২
  • / ২৩৩ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসকের জরুরি সভায় জলাবদ্ধতা নিরসনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

বৃহস্পিতবার ( ১১ আগস্ট) শত শত ক্ষুব্ধ কৃষকদের সমাবেশের প্রেক্ষিতে কাওয়াদীঘী হাওরের জলবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে তাৎক্ষণিক জরুরি সভা আহবান করেন জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান।

জরুরি সভায় উঠে আসে বিদ্যুৎ সংকটের বিষয়। তাৎক্ষণিক অন্যত্র থেকে ২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ অতিরিক্ত যোগ করে কাশিমপুর সেচ পাম্প সচল রাখার সিদ্ধান্ত হয়। এরই প্রেক্ষিতে ২৪ ঘন্টার মধ্যে একটানা ১৮ ঘন্টা কাশিমপুর পাম্পে ৮টি পাম্প চলবে, এবং ৬ ঘন্টা চলবে ২ টি পাম্প। (যেখানে আগে চলতো ৬ ঘন্টা ৮টি পাম্প এবং ১৮ ঘন্টা ২ টি পাম্প)

জেলা প্রশাসক আশা প্রকাশ করেছেন শনিবার থেকে দ্রুত জলাবদ্ধতা নিরসন হবে। সার্বিক পরিস্থিতি মনিটরিং করবে পাউবো,বিদ্যুৎ, কৃষি ও জেলা প্রশাসন অফিস।

জরুরি সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) তানিয়া সুলতানা, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী, প্রকৌশলী মো হাবিবুল বাহার, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো শামসুদ্দিন আহমদ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো আক্তারুজ্জামান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মো সাইফুল ইসলাম, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পান্না দত্ত ও সাংবাদিকবৃন্দ।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

কাওয়াদীঘী হাওরের জলাবদ্ধতা দ্রুত নিরসন হবে… জেলা প্রশাসক

আপডেট সময় ১২:১৪:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২

বিশেষ প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসকের জরুরি সভায় জলাবদ্ধতা নিরসনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

বৃহস্পিতবার ( ১১ আগস্ট) শত শত ক্ষুব্ধ কৃষকদের সমাবেশের প্রেক্ষিতে কাওয়াদীঘী হাওরের জলবদ্ধতা নিরসনের লক্ষ্যে তাৎক্ষণিক জরুরি সভা আহবান করেন জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান।

জরুরি সভায় উঠে আসে বিদ্যুৎ সংকটের বিষয়। তাৎক্ষণিক অন্যত্র থেকে ২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ অতিরিক্ত যোগ করে কাশিমপুর সেচ পাম্প সচল রাখার সিদ্ধান্ত হয়। এরই প্রেক্ষিতে ২৪ ঘন্টার মধ্যে একটানা ১৮ ঘন্টা কাশিমপুর পাম্পে ৮টি পাম্প চলবে, এবং ৬ ঘন্টা চলবে ২ টি পাম্প। (যেখানে আগে চলতো ৬ ঘন্টা ৮টি পাম্প এবং ১৮ ঘন্টা ২ টি পাম্প)

জেলা প্রশাসক আশা প্রকাশ করেছেন শনিবার থেকে দ্রুত জলাবদ্ধতা নিরসন হবে। সার্বিক পরিস্থিতি মনিটরিং করবে পাউবো,বিদ্যুৎ, কৃষি ও জেলা প্রশাসন অফিস।

জরুরি সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) তানিয়া সুলতানা, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী, প্রকৌশলী মো হাবিবুল বাহার, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো শামসুদ্দিন আহমদ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো আক্তারুজ্জামান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মো সাইফুল ইসলাম, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পান্না দত্ত ও সাংবাদিকবৃন্দ।