1. mrrahel7@gmail.com : Admin : Mahbubur Rahel
  2. samadpress96@gmail.com : Samad Ahmed : Samad Ahmed
চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবে সংবাদ মম্মেলন - moulvibazar24.com
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম

চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবে সংবাদ মম্মেলন

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২১

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি:শ্রীমঙ্গলে একটি স্কুলে ১৪ বছর ধরে মাস্টার রোলে চাকরি করার পর অবশেষে চাকরি স্থায়ী না হওয়ায় শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগি নাইটগার্ড আবুল কাশেম।

সোমবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে সংবাদ ভুক্তভোগী নাইটগার্ড আবুল কাশেম স্ত্রী ও ৬ সন্তান নিয়ে সম্মেলনে উপস্থিত হয়ে লিখিত বক্তব্য বলেন, তিনি দীর্ঘ ১৪ বছর যাবত শহরের ঐতিহ্যবাহী শাহ মোস্তফা জামেয়া ইসলামিয়া উচ্চবিদ্যালয়ে নৈশপ্রহরী হিসেবে মাস্টার রোলে কর্মরত আছি। ২০০৭ সালে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মাস্টার রোলে মাত্র ৩ হাজার টাকা বেতনে আমাকে নিয়োগ প্রদান করা হয়। নিয়োগ প্রদানকালে আমাকে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিলেন চাকুরী কিছুদিনের মধ্যে ¯’ায়ী হবে। চাকুরী ¯’ায়ী হবার আশায় একে-একে দীর্ঘ ১৪টি বছর অত্যন্ত সততা ও আন্তরিকতার সাথে এ প্রতিষ্ঠানের নৈশপ্রহরী হিসেবে দায়িত্ব পালন করি। বর্তমানে আমাকে ৪ হাজার ৫শ’ টাকা বেতন প্রদান করা হয়। চলতি বছরের শুরুতে আমাকে আশ্বাস প্রদান করা হয় দ্রæততম সময়ের মধ্যে চাকুরী ¯’ায়ীকরণ করা হবে। কিন্তু গত প্রায় ১৫ দিন পূর্বে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু তাহের শাহেদ গাজী মহোদয় আমাকে জানান আমার বয়স বেশি হওয়ার ফলে আমার চাকুরী ¯’ায়ীকরণ সম্ভব নয়। আমি তৎক্ষনাত আমার চাকুরী কোনভাবে ¯’ায়ী করা সম্ভব না হলে আমার পুত্র মো. শাকিল আহমদকে আমার স্থলে নিয়োগ প্রদানের অনুরোধ করি। আমার কথা শুনে প্রধান শিক্ষক মহোদয় আমার পুত্রকে আবেদন করতে বলেন। উনার কথামতো আমার পুত্র আমার পদে নিয়োগের জন্য আবেদন করে। গতকাল ১৮ অক্টোবর সন্ধ্যায় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সম্মানিত সভাপতি জনাব মো. আব্দুল বাছিত মহোদয় জানান, আমার পুত্রকে আমার স্থলে চাকুরী প্রদান করা সম্ভব নয়। তিনি নতুন একজনকে নিয়োগ প্রদান করছেন। আবুল কাশেম আরো বলেন, আমি একজন নিতান্তই দরিদ্র মানুষ এবং পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। মাস্টার রোলে চাকুরী করে যে বেতন পেতাম তা দিয়ে ৬ সন্তান, স্ত্রীসহ ৮ জনের পরিবার খেয়ে না খেয়ে কোন রকমে দিনানিপাত করছিলাম। তথাপিও চাকুরী ¯’ায়ী হলে একটু সুখের মুখ দেখবো সে প্রত্যাশায় দীর্ঘ ১৪টি বছর নৈশপ্রহরী হিসেবে সামান্য বেতনে চাকুরী করে আসছি। দীর্ঘ এ চাকুরী জীবনে কোনদিন কর্তব্যে অবহেলা করিনি। বর্তমানে পরিবার-পরিজন নিয়ে আমার পথে বসার উপক্রম।
নাইটগার্ড আবুল কাশেম বলেন,আমার পুত্রের বর্তমান বয়স ১৮ বছরের উপরে। সে উক্ত বিদ্যালয়েরই একজন শিক্ষার্থী। আমাকে বয়সের অজুহাতে চাকুরী ¯’ায়ী না করলেও প্রত্যাশা ছিল আমার ছেলেকে চাকুরী প্রদান করলে অন্তত ১৪ বছরের কষ্ট সার্থক হবে। কিš‘ অজ্ঞাত কারনে আমার ছেলেকেও বঞ্চিত করে নতুন একজনকে নিয়োগ প্রদান করায় প্রকান্তরে আমার ও আমার পরিবারের মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়েছে। আমি আপনাদের মাধ্যমে আমার ¯’লে আমার পুত্র মো. শাকিল আহমদের চাকুরী প্রদানের জোর দাবি জানাচ্ছি।

 

 

এ সংক্রান্ত আরোও নিউজ
%d bloggers like this: