ঢাকা ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ট্রেডিশনসকে জরিমানা করলো ভোক্তা-অধিকার অধিদপ্তর অভিযোগকারী পেলেন নগদ টাকা

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:০০:৩৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২
  • / ৪৯৪ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধি: পরিধেয় বস্ত্রে ভ্যাটের নামে অতিরিক্ত টাকা নিয়েছে-এমনি অভিযোগ এনে মো: আফরোজ আহমদ সেন্ট্রাল রোডে অবস্থিত ট্রেডিশনস এর বিরুদ্ধে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগটি নিষ্পত্তির লক্ষে বাদী এবং বিবাদীর উপস্থিতিতে ১৭ আগষ্ট বুধবার জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের অফিস কক্ষে শুনানী অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত শুনানীতে দেখা যায় যে, একটি শার্টের মূল্য ১০৯০ টাকা থেকে ৫০% ছাড় দিয়ে ৫৪৫ টাকায় টেডিশনস বিক্রয় করেছে। কিন্ত অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠান ৫৪৫ টাকার উপরে ভ্যাট নেওয়ার কথা থাকলে তার ১০৯০ টাকার উপর ভ্যাট নিয়েছে। ৭.৫% হারে ভ্যাটবাবদ ৪১ টাকা নেওয়ার কথা থাকলেও তারা ৮২ টাকা ভ্যাট নিয়েছে অথাৎ বিক্রেতার কাছ থেকে তারা ৪১ টাকা অতিরিক্ত মূল্য রেখেছে। যদিও ট্রেডিশনস নিয়মিত ভ্যাট প্রদান করে থাকে তবে বিক্রয় মূল্যের উপর তারা ভ্যাট নেয়নি। ট্রেডিশনস এর ম্যানেজার মো: ইমরান উপস্থিত থেকে অভিযোগের দায় স্বীকার করে নেন। অভিযোগটির সত্যতার প্রেক্ষিতে সার্বিক দিক বিবেচনা করে ট্রেডিশনসকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় ।

জরিমানার অর্থ ট্রেডিশনস এর ম্যানেজার মো: ইমরান তাৎক্ষণিক পরিশোধ করেন।

আইন অনুযায়ী অভিযোগকারী মো: আফরোজ আহমদকে জরিমানার ২৫%=২ হাজার ৫ শত টাকা প্রদান করা হয়।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ট্রেডিশনসকে জরিমানা করলো ভোক্তা-অধিকার অধিদপ্তর অভিযোগকারী পেলেন নগদ টাকা

আপডেট সময় ০৯:০০:৩৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২

বিশেষ প্রতিনিধি: পরিধেয় বস্ত্রে ভ্যাটের নামে অতিরিক্ত টাকা নিয়েছে-এমনি অভিযোগ এনে মো: আফরোজ আহমদ সেন্ট্রাল রোডে অবস্থিত ট্রেডিশনস এর বিরুদ্ধে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, জেলা কার্যালয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগটি নিষ্পত্তির লক্ষে বাদী এবং বিবাদীর উপস্থিতিতে ১৭ আগষ্ট বুধবার জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের অফিস কক্ষে শুনানী অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত শুনানীতে দেখা যায় যে, একটি শার্টের মূল্য ১০৯০ টাকা থেকে ৫০% ছাড় দিয়ে ৫৪৫ টাকায় টেডিশনস বিক্রয় করেছে। কিন্ত অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠান ৫৪৫ টাকার উপরে ভ্যাট নেওয়ার কথা থাকলে তার ১০৯০ টাকার উপর ভ্যাট নিয়েছে। ৭.৫% হারে ভ্যাটবাবদ ৪১ টাকা নেওয়ার কথা থাকলেও তারা ৮২ টাকা ভ্যাট নিয়েছে অথাৎ বিক্রেতার কাছ থেকে তারা ৪১ টাকা অতিরিক্ত মূল্য রেখেছে। যদিও ট্রেডিশনস নিয়মিত ভ্যাট প্রদান করে থাকে তবে বিক্রয় মূল্যের উপর তারা ভ্যাট নেয়নি। ট্রেডিশনস এর ম্যানেজার মো: ইমরান উপস্থিত থেকে অভিযোগের দায় স্বীকার করে নেন। অভিযোগটির সত্যতার প্রেক্ষিতে সার্বিক দিক বিবেচনা করে ট্রেডিশনসকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় ।

জরিমানার অর্থ ট্রেডিশনস এর ম্যানেজার মো: ইমরান তাৎক্ষণিক পরিশোধ করেন।

আইন অনুযায়ী অভিযোগকারী মো: আফরোজ আহমদকে জরিমানার ২৫%=২ হাজার ৫ শত টাকা প্রদান করা হয়।