1. mrrahel7@gmail.com : Admin : Mahbubur Rahel
  2. samadpress96@gmail.com : Samad Ahmed : Samad Ahmed
নারীদের অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে চাঁদাবাজী, র‌্যাবের ফাঁদে ভন্ড কবিরাজ - moulvibazar24.com
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম
পি,ফর,ডি এর উদ্যোগে মৌলভীবাজারে দূনীতি প্রতিরোধ দিবস পালিত মৌলভীবাজারে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালন মৌলভীবাজারে আন্তজার্তিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালিত শ্রীমঙ্গলে আ’লীগের মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থীদের নিকঠ মনোনয়নপত্র হস্তান্তর মৌলভীবাজারে সাবেক ছাত্রলীগ নেতার সৌজন্যে সাক্ষাৎ বন্ধুকে সাথে নিয়ে কিশোরীকে ধর্ষণ,আটক ২ মৌলভীবাজার পাক হানাদার মুক্ত দিবস পালিত মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে আটক বন্দীদের ভ্যাকসিন কার্যক্রমের উদ্বোধন ওসমানীনগরের সাদিপুর ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদের কমিটি গঠন সভাপতি মনোজ,সম্পাদক পান্ডব মৌলভীবাজারে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে আমন ধান ও শীতকালীন সবজির ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা

নারীদের অশ্লীল ভিডিও ধারণ করে চাঁদাবাজী, র‌্যাবের ফাঁদে ভন্ড কবিরাজ

  • আপডেট সময় শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে অপচিকিৎসা এবং নারীদের অশ্লিল ভিডিও ধারণ করে চাঁদাবাজীর অভিযোগে এক ভন্ড কবিরাজকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার ইমামবাড়ি বাজার থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৯ হবিগঞ্জ ক্যাম্পের সদস্যরা। এ সময় তার কাছ থেকে একটি কম্পিউটার, মেমোরি কার্ড, দুটি মোবাইল ও অন্যান্য সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত কবিরাজ আহাদুর রহমান বানিয়াচং উপজেলার কুর্শা খাগাউড়া গ্রামের শোল্লুক মিয়ার ছেলে।

র‌্যাব-৯ হবিগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ মোহাম্মদ নাহিদ হাসান শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সংবাদ মাধ্যমে প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানান।

র‌্যাব জানায়, কবিরাজ আহাদুর রহমান পড়াশুনা করেছেন ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত। কবিরাজি করার আগে হবিগঞ্জ ও মৌলভীবাজারে বিভিন্ন হোটেল রেস্টুরেন্টে ওয়েটারের কাজ করতেন। গত দুই বছর আগে ইউটিউব দেখে সে যাদু-মন্ত্র শিখে পেশা হিসেবে কবিরাজিকে বেচে নেয়। স্থানীয় ইমামবাড়ি বাজারে চেম্বার বসিয়ে কুফরী, বান, বেদ, কন্নি, যাদু, চালান, স্বামি-স্ত্রীর অমিল, বিবাহ না হওয়া, উপরী গর্ভনস্ট না হওয়াসহ বিভিন্ন চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা শুরু করে। এক পর্যায়ে তিনি প্রতারণার আরও ভয়ঙ্কর ফাঁদ তৈরী করেন। বিভিন্ন চিকিৎসার নামে নারীদের ফাঁদে ফেলে অশ্লীল ভিডিও ধারণ করতেন। পরে সেগুলো ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা দাবি করতেন।র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে কবিরাজ আহাদুর রহমান জানিয়েছে, এ পর্যন্ত সে ৩০-৪০ জন নারীর অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ধারণ করে চাঁদা হাতিয়েছেন।

র‌্যাব-৯ হবিগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লে. মোহাম্মদ নাহিদ হাসান জানান, একাধিক ভুক্তভোগীর অভিযোগে শুক্রবার দুপুরে র‌্যাব তাকে গ্রেপ্তার। এ সময় তার দুই সহযোগি পালিয়ে যায়। পরে রাতেই তাকে বানিয়াচং থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরোও নিউজ
%d bloggers like this: