1. mrrahel7@gmail.com : Admin : Mahbubur Rahel
  2. samadpress96@gmail.com : Samad Ahmed : Samad Ahmed
পড়া না পারায় বেত্রাঘাত, শিশু শিক্ষার্থী হাসপাতালে ভর্তি | moulvibazar24.com
শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০১:৩৮ পূর্বাহ্ন

পড়া না পারায় বেত্রাঘাত, শিশু শিক্ষার্থী হাসপাতালে ভর্তি

  • আপডেট সময় সোমবার, ১৭ আগস্ট, ২০২০

মাদরাসা শিক্ষকের বেদম বেত্রাঘাতে তৌফিকুর রহমান (১২) নামে এক শিশু ছাত্র গুরুত্বর আহত হয়েছে। পরে আহতবস্থায় ওই শিক্ষার্থীকে ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

গত রোববার সন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের ইবরাহীম খাঁ হাফিজিয়া মাদরাসা ও ইসলামী কিন্ডার গার্টেনে এই ঘটনা ঘটে। আহত তৌফিকুর রহমান পৌর এলাকার পশ্চিম ভূঞাপুর গ্রামের তুষার আহম্মেদ বুলবুলের ছেলে ও ইবরাহীম খাঁ হাফিজিয়া মাদরাসা ও ইসলামী কিন্ডার গার্টেনের হেফজ বিভাগের ছাত্র।

সোমবার (১৭ আগস্ট) সকালে সরেজমিনে ভূঞাপুর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, শিক্ষক কর্তৃক মারধরের শিকার তৌফিকুর হাসপাতলে পুরুষ ওয়ার্ডের ২নম্বর বেডে শুয়ে ব্যাথার যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে।

আহত শিক্ষার্থী তৌফিকুর রহমান জানায়, ‘ভূঞাপুর ইবরাহীম খাঁ হাফিজিয়া মাদরাসার শিক্ষক হযরত আলী পড়া না পারায় গাছের ডাল দিয়ে মারধর শুরু করেন। শনিবারও একই কায়দায় মারধর করে। মারধরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের সৃষ্টি হয়েছে। পরে মারধরের বিষয়টি অভিভাবকদের কাছে জানালে তারা হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।

ইবরাহীম খাঁ হাফিজিয়া মাদরাসা ও ইসলামী কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষক হযরত আলী বলেন,’গত কয়েকদিন ধরে ওই শিক্ষার্থী কোন পড়া দিতে পারেনি। বারবার বুঝানোর পরও সে পড়া দিতে পারেনি। পরে রাগান্বিত হয়ে তাকে বেত দিয়ে মারধর করা হয়েছে। মারপিট একটু বেশি হয়ে গেছে এতে আমি খুবই মর্মাহত। পরে তার অভিভাবকরা এসে শিক্ষার্থীকে নিয়ে গিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করেছে বলে শুনেছি।
এ বিষয়ে ভূঞাপুর ফাযিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল ও ইবরাহীম খাঁ হাফিজিয়া মাদরাসার সভাপতি আব্দুছ সোবহান বলেন-‘ঘটনাটি শুনেছি। তবে কি কারণে শিক্ষার্থীকে মারধর করা হয়েছে সেটা জানতে পারেনি। হাসপাতালে ওই শিক্ষার্থীকে দেখতে গিয়েছিলাম।
ভূঞাপুর স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. নিশাত সাইয়ীদা বলেন,’ওই শিক্ষার্থীর হাত-পা ও উরু এবং ঘারসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারধরের কারণে লাল ও ফুলে জখম হয়ে গেছে। এছাড়া তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ সংক্রান্ত আরোও নিউজ