ঢাকা ১০:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ….পরিবেশমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০১:৪৬:৩০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২
  • / ২৪৪ বার পড়া হয়েছে

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আজন্ম লালিত স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত সোনার বাংলা বিনির্মাণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ। কিছু স্বাধীনতা বিরোধী দেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার বিরোধিতা করলেও তারা সফল হতে পারবে না।

তিনি বলেন, জাতির পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করে বর্তমান সরকার টেকসই পরিবেশ নিশ্চিতকরণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, সকলে মিলে কাজ করে সাধারণ মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি নিশ্চিত করতে পারলে জাতির পিতার আত্মা শান্তি পাবে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকীতে ‘জাতীয় শোক দিবস’ উপলক্ষ্যে বন অধিদপ্তরে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিবেশমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. ফারহিনা আহমেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব(জলবায়ু পরিবর্তন) মোঃ মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ ন্যাশনাল হারবেরিয়ামের পরিচালক সঞ্জয় কুমার ভৌমিক, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ আবদুল হামিদ এবং বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক মোঃ আমীর হোসাইন চৌধুরী প্রমুখ।

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পরপরই বঙ্গবন্ধু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনের পাশাপাশি দেশের প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষায় বিভিন্ন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন। এলক্ষ্যে তিনি দেশজুড়ে বৃক্ষরোপণ, উপকূল সংরক্ষণে বনায়ন, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ, হাওর-বাঁওড়, নদ-নদী ও অন্যান্য জলাভূমি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেন। যার ফলশ্রুতিতে বর্তমানে বাংলাদেশে পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষরোপণ একটি সামাজিক আন্দোলনে পরিণত হয়েছে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু দূষণমুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করতে এবং দেশের বন, বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে প্রয়োজনীয় আইন প্রণয়ন করেছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা আর আসবে না। জাতির পিতার জন্ম না হলে দেশে স্বাধীন হতো না। বঙ্গবন্ধু আমাদের মাঝে না থাকলেও, তাঁর আদর্শ আছে, দর্শন আছে। দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে তাঁর স্বপ্ন পূরণের দায়িত্ব এখন আমাদের সকলের। মন্ত্রী এসময় জাতির পিতার নির্দেশনা মতো সাধারণ মানুষের জীবন মান উন্নয়নে আন্তরিকভাবে কাজ করার জন্য সরকারি কর্মচারীদের প্রতি আহবান জানান।

আলোচনা সভার পরে দোয়া মাহফিলে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে শাহাদতবরণকারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সহ শহিদদের গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন এবং তাঁদের সকলের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন।

এরপূর্বে মন্ত্রী পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের পক্ষে আজ সকাল সাড়ে ৯ টায় ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ….পরিবেশমন্ত্রী

আপডেট সময় ০১:৪৬:৩০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আজন্ম লালিত স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্য মুক্ত সোনার বাংলা বিনির্মাণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ। কিছু স্বাধীনতা বিরোধী দেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার বিরোধিতা করলেও তারা সফল হতে পারবে না।

তিনি বলেন, জাতির পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করে বর্তমান সরকার টেকসই পরিবেশ নিশ্চিতকরণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, সকলে মিলে কাজ করে সাধারণ মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি নিশ্চিত করতে পারলে জাতির পিতার আত্মা শান্তি পাবে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকীতে ‘জাতীয় শোক দিবস’ উপলক্ষ্যে বন অধিদপ্তরে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিবেশমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. ফারহিনা আহমেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব(জলবায়ু পরিবর্তন) মোঃ মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত সচিব ও বাংলাদেশ ন্যাশনাল হারবেরিয়ামের পরিচালক সঞ্জয় কুমার ভৌমিক, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ আবদুল হামিদ এবং বন অধিদপ্তরের প্রধান বন সংরক্ষক মোঃ আমীর হোসাইন চৌধুরী প্রমুখ।

পরিবেশমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পরপরই বঙ্গবন্ধু যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পুনর্গঠনের পাশাপাশি দেশের প্রকৃতি ও পরিবেশ রক্ষায় বিভিন্ন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন। এলক্ষ্যে তিনি দেশজুড়ে বৃক্ষরোপণ, উপকূল সংরক্ষণে বনায়ন, বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ, হাওর-বাঁওড়, নদ-নদী ও অন্যান্য জলাভূমি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেন। যার ফলশ্রুতিতে বর্তমানে বাংলাদেশে পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষরোপণ একটি সামাজিক আন্দোলনে পরিণত হয়েছে। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু দূষণমুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করতে এবং দেশের বন, বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে প্রয়োজনীয় আইন প্রণয়ন করেছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা আর আসবে না। জাতির পিতার জন্ম না হলে দেশে স্বাধীন হতো না। বঙ্গবন্ধু আমাদের মাঝে না থাকলেও, তাঁর আদর্শ আছে, দর্শন আছে। দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়ে তাঁর স্বপ্ন পূরণের দায়িত্ব এখন আমাদের সকলের। মন্ত্রী এসময় জাতির পিতার নির্দেশনা মতো সাধারণ মানুষের জীবন মান উন্নয়নে আন্তরিকভাবে কাজ করার জন্য সরকারি কর্মচারীদের প্রতি আহবান জানান।

আলোচনা সভার পরে দোয়া মাহফিলে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কালরাতে শাহাদতবরণকারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সহ শহিদদের গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন এবং তাঁদের সকলের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন।

এরপূর্বে মন্ত্রী পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের পক্ষে আজ সকাল সাড়ে ৯ টায় ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।