ঢাকা ০১:৩০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ
মৌলভীবাজার মনু নদীর পানি নিয়ে আতঙ্ক না হওয়ার পরামর্শ শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ভোট গ্রহন চলছে ছড়া ও খালের পাড় ভেঙে বিভিন্ন এলাকা ও ফসলাদির জমি প্লাবিত মৌলভীবাজারে ভিটামিন এ ক্যাম্পসুল খাওয়ানো হবে  ২১২৬৪৮ জন শিশুকে বিমান বাহিনীর প্রধান হলেন হাসান মাহমুদ খাঁন মৌলভীবাজারে মাদক বিরোধী সেমিনার এসএসসি ২০২৪ ইং জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদেরকে সোনার বাংলা আদর্শ ক্লাবের সংবর্ধনা প্রদান মৌলভীবাজারে অস্ত্র ও বিপুল পরিমান মাদকসহ একজন আটক  ৩০মে ন‍্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন মৌলভীবাজার এর উদ‍্যোগে ফ্রি হার্ট ক‍্যাম্প কলেজের একযুগ পূর্তি উপলক্ষ্যে বিশ্বায়ন-৩ এর প্রকাশনা উৎসব

বিএটি বাংলাদেশের প্রথম নারী এমডি মনীষা আব্রাহাম

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০২:৫৯:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৯৩ বার পড়া হয়েছে

ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো (বিএটি) বাংলাদেশের নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মনীষা আব্রাহাম। বিএটি বাংলাদেশের ১১৪ বছরের ইতিহাসে তিনিই প্রথম নারী এমডি।

তার নিয়োগ আগামী ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে। তিনি শেহজাদ মুনীমের স্থলাভিষিক্ত হবেন। ফাস্ট-মুভিং কনজ্যুমার গুডস (এফএমসিজি), তামাকসহ বিভিন্ন খাতে বিপণন ও সাধারণ ব্যবস্থাপনায় তার প্রায় ৩০ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে।

 

এটি বাংলাদেশ শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে। এতে বলা হয়, মনীষা আব্রাহাম গত বছরের মার্চ থেকে বিএটি বাংলাদেশের পরিচালনা পর্ষদে একজন অ-নির্বাহী পরিচালক হিসেবে আছেন। তিনি বিএটি গ্রুপের অংশ সিলন টোব্যাকো কোম্পানি থেকে বিএটি বাংলাদেশে যোগ দিচ্ছেন। সিলন টোব্যাকো কোম্পানিতে তিনি এমডি ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। কর্মজীবনে তিনি এশিয়া, প্যাসিফিক, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের নানা দেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৯৫ সালে আবুধাবিতে কর্মজীবন শুরু করার আগে মনীষা ভারতের জ্যোতি নিবাস কলেজ থেকে বি কম ও বিরলা ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি থেকে মার্কেটিং অ্যান্ড ফিন্যান্স বিষয়ে এমবিএ সম্পন্ন করেন।

নতুন দায়িত্ব সম্পর্কে মনীষা বলেন, ‘১১৪ বছর ধরে এই অঞ্চলে কাজ করার ক্ষেত্রে সফলতা ও ইতিবাচক প্রভাবের সমৃদ্ধ পরম্পরা রয়েছে, এমন একটি প্রতিষ্ঠান (বিএটি বাংলাদেশ) নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য আমার ওপর আস্থা রাখায় আমি অত্যন্ত আনন্দিত। বিএটি বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির যাত্রা এগিয়ে নিতে ও প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা বজায় রাখতে আমি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের অন্যতম সর্বোচ্চ করদাতা ও সরকারের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের অংশীদার হিসেবে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে এই প্রতিষ্ঠান। আমার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সবার জন্য একটি সম্ভাবনাময় আগামী নিশ্চিতে প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে আমি আশাবাদী।’

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

বিএটি বাংলাদেশের প্রথম নারী এমডি মনীষা আব্রাহাম

আপডেট সময় ০২:৫৯:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো (বিএটি) বাংলাদেশের নতুন ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মনীষা আব্রাহাম। বিএটি বাংলাদেশের ১১৪ বছরের ইতিহাসে তিনিই প্রথম নারী এমডি।

তার নিয়োগ আগামী ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে। তিনি শেহজাদ মুনীমের স্থলাভিষিক্ত হবেন। ফাস্ট-মুভিং কনজ্যুমার গুডস (এফএমসিজি), তামাকসহ বিভিন্ন খাতে বিপণন ও সাধারণ ব্যবস্থাপনায় তার প্রায় ৩০ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে।

 

এটি বাংলাদেশ শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে। এতে বলা হয়, মনীষা আব্রাহাম গত বছরের মার্চ থেকে বিএটি বাংলাদেশের পরিচালনা পর্ষদে একজন অ-নির্বাহী পরিচালক হিসেবে আছেন। তিনি বিএটি গ্রুপের অংশ সিলন টোব্যাকো কোম্পানি থেকে বিএটি বাংলাদেশে যোগ দিচ্ছেন। সিলন টোব্যাকো কোম্পানিতে তিনি এমডি ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। কর্মজীবনে তিনি এশিয়া, প্যাসিফিক, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের নানা দেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৯৫ সালে আবুধাবিতে কর্মজীবন শুরু করার আগে মনীষা ভারতের জ্যোতি নিবাস কলেজ থেকে বি কম ও বিরলা ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি থেকে মার্কেটিং অ্যান্ড ফিন্যান্স বিষয়ে এমবিএ সম্পন্ন করেন।

নতুন দায়িত্ব সম্পর্কে মনীষা বলেন, ‘১১৪ বছর ধরে এই অঞ্চলে কাজ করার ক্ষেত্রে সফলতা ও ইতিবাচক প্রভাবের সমৃদ্ধ পরম্পরা রয়েছে, এমন একটি প্রতিষ্ঠান (বিএটি বাংলাদেশ) নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য আমার ওপর আস্থা রাখায় আমি অত্যন্ত আনন্দিত। বিএটি বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির যাত্রা এগিয়ে নিতে ও প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা বজায় রাখতে আমি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের অন্যতম সর্বোচ্চ করদাতা ও সরকারের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের অংশীদার হিসেবে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে এই প্রতিষ্ঠান। আমার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সবার জন্য একটি সম্ভাবনাময় আগামী নিশ্চিতে প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে আমি আশাবাদী।’