ঢাকা ০৬:০৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজারের সিএনজিতে গ্যাস সংকট….ভাড়া বৃদ্ধি বিপাকে যাত্রীরা

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৭:৪৬:০৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ জুলাই ২০২২
  • / ৬৮৬ বার পড়া হয়েছে

মৌলভীবাজার২৪ ডেস্কঃ দেশে চলমান বিদ্যুত সংকটে জনজীবন যেখানে অতিষ্ঠ সেখানে মৌলভীবাজার জেলাজুড়ে চলছে গণপরিবহন সহ সিএনজিচালিত অটোরিকশার ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য। রাতারাতি বিভিন্ন অজুহাতে ভাড়া বৃদ্ধিতে বিপাকে পড়েছেন এ অঞ্চলের যাত্রীসাধারণ। গ্যাস সংকট দেখিয়ে ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে দেড় থেকে দুইগুণ।

বিদ্যুতের চলমান লোডশোডিং সাথে গ্যাস সংকটে জেলার বিভিন্ন গ্যাস পাম্পে দীর্ঘ লাইন, সেই সাথে নানাবিধ কারণ দেখিয়ে দেড়গুণ ভাড়া বৃদ্ধিসহ যাত্রীদের কাছ থেকে তা আদায় করে নিচ্ছে সিএনজি অটোরিকশা চালকরা’।

সোমবার (২৫ জুলাই) সরেজমিনে সিএনজি স্ট্যান্ডে কিছু চালকদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, গত কয়েকদিন দরে কিছু সংখ্যক চালক ৫০ টাকা করে ভাড়া আদায় করছে।

ভাড়া বেশি নেওয়ার কারণ জানতে চাইলে তারা জানায়, জেলার সবকটি সিএনজি পাম্প বন্ধ রয়েছে। দু’একটি খোলা রয়েছে, তাতেও দীর্ঘ লাইন। অনেক সময় গ্যাস পাওয়া যায় না। তাছাড়া ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে আমাদের তাতে আমাদের সময় যেমন নষ্ট হচ্ছে তেমনি আমাদের আয় রোজগারও কমে যাচ্ছে।

এদিকে সিএনজি অটোরিকশা চালকদের নিজেদের মনগড়া ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে জনমনে দেখা দিয়েছে নানান প্রশ্ন। যাত্রীরা বলছেন, হঠাৎ করে চালকরা দেড়গুণ ভাড়া বৃদ্ধি করে যাত্রীদের জিম্মি করে ভাড়া আদায় করছেন, কিন্তু সেখানে দেখার কেউ নেই।

জানাযায়, শ্রীমঙ্গল থেকে মৌলভীবাজার ‘১৮ কিলোমিটার’ রাস্তার পূর্বের ভাড়া নির্ধারণ ছিল ৩৫ টাকা, কালাপুর ১৫ টাকা, কাকিয়া বাজার ১০ টাকা। কিন্তু বর্তমানে শ্রীমঙ্গল থেকে মৌলভীবাজার সিএনজি ভাড়া ৫০ টাকা, কালাপুর বাজার ২০ টাকা ও কাকিয়া বাজার ১৫ টাকা করে নিচ্ছে। এতে করে সাধারণ যাত্রীদের উপর চাপ পড়ছে। চালকরা গ্যাস সংকটের অযুহাতে হঠাৎ ভাড়া বৃদ্ধি করেছেন। এতে হয়রানি,ও জিম্মি হয়ে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। শুধু শ্রীমঙ্গল নয়, সারা জেলাজুড়ে তাদের এই নৈরাজ্য চলছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

যাত্রী হয়রানি নিয়ে জানতে চাইলে শ্রীমঙ্গলের মৌলভীবাজার রোডস্থ সিএনজি শ্রমিক পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জালাল মিয়া বলেন, আমাদের এখানে বিদ্যুতের তীব্র সমস্যা রয়েছে সেই সাথে গ্যাস সংকট তবে আমাদের অফিসিয়ালি কোন ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়নি, আগের ভাড়াই চলমান রয়েছে।

প্রশাসন সূত্রে জানাযায়, বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে, আমরা সিএনজি অটোরিকশা চালক ও তাদের শ্রমিক কমিটির কর্তৃপক্ষকে নিয়ে বসব, ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়ে তাদের সাথে আলোচনা করবো, যদি তারা যাত্রীদের হয়রানি করেন বা তাদের কাছ থেকে বেশী ভাড়া আদায় করে থাকে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মৌলভীবাজারের সিএনজিতে গ্যাস সংকট….ভাড়া বৃদ্ধি বিপাকে যাত্রীরা

আপডেট সময় ০৭:৪৬:০৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ জুলাই ২০২২

মৌলভীবাজার২৪ ডেস্কঃ দেশে চলমান বিদ্যুত সংকটে জনজীবন যেখানে অতিষ্ঠ সেখানে মৌলভীবাজার জেলাজুড়ে চলছে গণপরিবহন সহ সিএনজিচালিত অটোরিকশার ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য। রাতারাতি বিভিন্ন অজুহাতে ভাড়া বৃদ্ধিতে বিপাকে পড়েছেন এ অঞ্চলের যাত্রীসাধারণ। গ্যাস সংকট দেখিয়ে ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে দেড় থেকে দুইগুণ।

বিদ্যুতের চলমান লোডশোডিং সাথে গ্যাস সংকটে জেলার বিভিন্ন গ্যাস পাম্পে দীর্ঘ লাইন, সেই সাথে নানাবিধ কারণ দেখিয়ে দেড়গুণ ভাড়া বৃদ্ধিসহ যাত্রীদের কাছ থেকে তা আদায় করে নিচ্ছে সিএনজি অটোরিকশা চালকরা’।

সোমবার (২৫ জুলাই) সরেজমিনে সিএনজি স্ট্যান্ডে কিছু চালকদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, গত কয়েকদিন দরে কিছু সংখ্যক চালক ৫০ টাকা করে ভাড়া আদায় করছে।

ভাড়া বেশি নেওয়ার কারণ জানতে চাইলে তারা জানায়, জেলার সবকটি সিএনজি পাম্প বন্ধ রয়েছে। দু’একটি খোলা রয়েছে, তাতেও দীর্ঘ লাইন। অনেক সময় গ্যাস পাওয়া যায় না। তাছাড়া ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে আমাদের তাতে আমাদের সময় যেমন নষ্ট হচ্ছে তেমনি আমাদের আয় রোজগারও কমে যাচ্ছে।

এদিকে সিএনজি অটোরিকশা চালকদের নিজেদের মনগড়া ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে জনমনে দেখা দিয়েছে নানান প্রশ্ন। যাত্রীরা বলছেন, হঠাৎ করে চালকরা দেড়গুণ ভাড়া বৃদ্ধি করে যাত্রীদের জিম্মি করে ভাড়া আদায় করছেন, কিন্তু সেখানে দেখার কেউ নেই।

জানাযায়, শ্রীমঙ্গল থেকে মৌলভীবাজার ‘১৮ কিলোমিটার’ রাস্তার পূর্বের ভাড়া নির্ধারণ ছিল ৩৫ টাকা, কালাপুর ১৫ টাকা, কাকিয়া বাজার ১০ টাকা। কিন্তু বর্তমানে শ্রীমঙ্গল থেকে মৌলভীবাজার সিএনজি ভাড়া ৫০ টাকা, কালাপুর বাজার ২০ টাকা ও কাকিয়া বাজার ১৫ টাকা করে নিচ্ছে। এতে করে সাধারণ যাত্রীদের উপর চাপ পড়ছে। চালকরা গ্যাস সংকটের অযুহাতে হঠাৎ ভাড়া বৃদ্ধি করেছেন। এতে হয়রানি,ও জিম্মি হয়ে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। শুধু শ্রীমঙ্গল নয়, সারা জেলাজুড়ে তাদের এই নৈরাজ্য চলছে বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

যাত্রী হয়রানি নিয়ে জানতে চাইলে শ্রীমঙ্গলের মৌলভীবাজার রোডস্থ সিএনজি শ্রমিক পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জালাল মিয়া বলেন, আমাদের এখানে বিদ্যুতের তীব্র সমস্যা রয়েছে সেই সাথে গ্যাস সংকট তবে আমাদের অফিসিয়ালি কোন ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়নি, আগের ভাড়াই চলমান রয়েছে।

প্রশাসন সূত্রে জানাযায়, বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে, আমরা সিএনজি অটোরিকশা চালক ও তাদের শ্রমিক কমিটির কর্তৃপক্ষকে নিয়ে বসব, ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়ে তাদের সাথে আলোচনা করবো, যদি তারা যাত্রীদের হয়রানি করেন বা তাদের কাছ থেকে বেশী ভাড়া আদায় করে থাকে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।