ঢাকা ০৮:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজারে জঙ্গিদের নিয়ে অভিযানে নেমেছে সিসিটিসি

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০২:০০:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩
  • / ৪৬৫ বার পড়া হয়েছে

মৌলভীবাজার২৪ ডেস্কঃ  মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের পাহাড়ি এলাকায় আরও জ‌ঙ্গি আস্তানার সন্ধেহে অভিযানে নেমেছে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিসিটিসি)।

 

মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) সকাল ৭ টার দিকে আটককৃত জঙ্গিদের নিয়ে অভিযানে যায় সিসিটিসি দল।

 

এ অভিযানে নেতৃত্বে রয়েছেন সিটিটিসি প্রধান মো. আসাদুজ্জামান।

উল্লেখ্য গতকাল সোমবার সকালে কর্মধা ইউনিয়নের আছকরাবাদ বাজার থেকে স্থানীয় লোকজন ১৭ জন জঙ্গিতে আটক করেন। খবর পেয়ে থানাপুলিশ ও পরে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট (সিটিটিসি) ঘটনাস্থলে আসে।

সিটিটিসি প্রধান মো. আসাদুজ্জামান বলেন,  আটককৃতরা নতুন জঙ্গি সংগঠন ‘ইমাম মাহমুদ কাফেলা’র সদস্য বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। আমরা আগেই বলেছিলাম- তাদের আরও আস্তানা এখানে আছে। এই ধারাবাহিকতা থেকে আজ (সোমবার) তারা আস্তানা থেকে পালানোর চেষ্টাকালে স্থানীয়রা আটক করেন। আটকদের মাঝে কয়েকজন ডাক্তার ও চায়নার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ২ জন ইঞ্জিনিয়ার আছে। তাদেরকে আরও ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন। আশা করি তাদের কাছ থেকে অনেক তথ্য পাওয়া যাবে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

মৌলভীবাজারে জঙ্গিদের নিয়ে অভিযানে নেমেছে সিসিটিসি

আপডেট সময় ০২:০০:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ অগাস্ট ২০২৩

মৌলভীবাজার২৪ ডেস্কঃ  মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের পাহাড়ি এলাকায় আরও জ‌ঙ্গি আস্তানার সন্ধেহে অভিযানে নেমেছে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিসিটিসি)।

 

মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) সকাল ৭ টার দিকে আটককৃত জঙ্গিদের নিয়ে অভিযানে যায় সিসিটিসি দল।

 

এ অভিযানে নেতৃত্বে রয়েছেন সিটিটিসি প্রধান মো. আসাদুজ্জামান।

উল্লেখ্য গতকাল সোমবার সকালে কর্মধা ইউনিয়নের আছকরাবাদ বাজার থেকে স্থানীয় লোকজন ১৭ জন জঙ্গিতে আটক করেন। খবর পেয়ে থানাপুলিশ ও পরে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট (সিটিটিসি) ঘটনাস্থলে আসে।

সিটিটিসি প্রধান মো. আসাদুজ্জামান বলেন,  আটককৃতরা নতুন জঙ্গি সংগঠন ‘ইমাম মাহমুদ কাফেলা’র সদস্য বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। আমরা আগেই বলেছিলাম- তাদের আরও আস্তানা এখানে আছে। এই ধারাবাহিকতা থেকে আজ (সোমবার) তারা আস্তানা থেকে পালানোর চেষ্টাকালে স্থানীয়রা আটক করেন। আটকদের মাঝে কয়েকজন ডাক্তার ও চায়নার বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ২ জন ইঞ্জিনিয়ার আছে। তাদেরকে আরও ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন। আশা করি তাদের কাছ থেকে অনেক তথ্য পাওয়া যাবে।