1. moulvibazar24.backup@gmail.com : admin :
  2. mrrahel7@gmail.com : rahel Ahmed : rahel Ahmed
  3. bm.ssc.batb@gmail.com : Shahab Ahmed : Shahab Ahmed
মৌলভীবাজার কাঁচাবাজারে আগুন,নাভিশ্বাস নিম্ন আয়ের মানুষ - moulvibazar24.com
শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ১০:০৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ খবর
মনু নদীর বন্যা প্রতিরোধ “মাষ্টার প্রকল্প” অর্থের অভাবে ধীরগতি মৌলভীবাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদে সমাবেশ কমলগঞ্জে টেণ্ডার ছাড়াই কাজ…নানা অনিয়মের অভিযোগ শনিবার তিনশ টাকা মজুরির দাবিতে চা বাগান শ্রমিকদের লাগাতার কর্মবিরতির ঘোষণা মৌলভীবাজারে আন্তর্জাতিক যুব দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও গাছের চারা বিতরন বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা সারাদেশে বৃষ্টি হতে পারে তদন্ত সংস্থা-এফবিআইয়ের কার্যালয়ে হামলার চেষ্টা,বন্দুকধারী নিহত কোটচাঁদপুর ম্যানেজিং কমিটির মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে গিয়ে দুই প্রার্থী লাঞ্ছিত ৩৬ বছর বিদেশে,অসুস্থ হয়ে রাজনগর ফিরলে গ্রহণ করেনি পরিবার!

মৌলভীবাজার কাঁচাবাজারে আগুন,নাভিশ্বাস নিম্ন আয়ের মানুষ

  • প্রকাশের সময় শুক্রবার, ৫ আগস্ট, ২০২২
  • ৭১ পঠিত

বিশেষ প্রতিনিধি: চাকুরী করেন সরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে মাসে কেটেকুটে বেতন পান মাত্র ২০-২৫  হাজার টাকারর মতো। ৪ সন্তানের জনক। থাকেন শহরের একটি আবাসিক এলাকায়। ভোরে বাজার করতে এসেছেন শহরের পশ্চিম বাজারে। ইলিশ মাছের দাম জিজ্ঞেস করতেই বিক্রেতা জানালেন এগুলো চাঁদপুরের কাঁচা ইলিশ, একদম কাঁচা। এক কেজির গুলো ১৫০০ টাকা আর ছোট মানে সাড়ে ৬শ’  গ্রামেরগুলো ৯৫০ টাকা। দাম শুনেই মুজিবুর রহমানের চোখ কপালে। সোঝা চলে যাচ্ছেন সবজির গলিতে।

এই প্রতিবেদককে জানালেন, যে টাকা বেতন পাই তা দিয়ে ৪ ছেলে-মেয়ের লেখাপড়া চালাতে হয়। আছে কাপড়চোপড়, ওষুধপত্র। আবার নিজের যাতায়াত টিফিন। বাচ্ছাদের টিউশন ফি। কীভাবে যে কী করি?

এমনি অবস্থা মৌলভীবাজারের নিম্ন আয়ের হাজার হাজার মানুষের। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম এখন আকাশের চুড়ায়। এসব খাটো আয়ের লোকজন এর নাগাল পাচ্ছে না।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) সকালে শহরের পশ্চিম বাজারে গেলে দেখা যায় মাছের বাজারে আগুন। ইলিশ ছাড়াও দেশী ফার্মের রুই ৩ কেজি ওজনেরগুলো ৫০০-৬০০ টাকা এবং দেড় কেজি ওজনেরগুলো ৩৫০ টাকা কেজি। হাকালুকি ও কাউয়া দিঘী হাওরের মাছ বলে প্রতি কেজি বালিয়া, গাগলা, রিটা, লাড়িয়া,চিংড়ি ১০০০ -১২০০ টাকা কেজি। আবার ছোট চিংড়ি ও  টেংরা ৮০০ টাকা। বড় আইড়, দেশী বোয়াল, গোজি আইড় ১২০০ টাকা এবং দেশী রুই, কালি বাউস, কাতল ৬০০ টাকা কে জি দরে বিক্রি হচ্ছে। বেড়েছে বয়লার, লেয়ার, সোনালী কক ও  ডিমের দাম। দেশী মুগ ও মশুর ডাল ১৩৫-৪০ টাকা। আর শুটলি ৪০০ থেকে প্রকার ভেদে ১৫/১৬০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

দিনমজুর সুমন মিয়া জানান, দিনে ৪/৫শ’ টাকার  টাকার বেশি রোজগার করতে পারি না। চালের কেজি ৫৫ টাকা। ৮ জনের সংসারে তিনি একমাত্র রোজগারি। ৪/৫ কেজি চাল কেনার পর অন্য বাজার। ৫০০ গ্রাম তেল ১০০ টাকা। শাক ৩০০ গ্রামের আটি ২৫ টাকা। পটল ৬০ টাকা, শশা ৫০-৬০ টাকা লাউ ছোট একটা  ৭০-৮০ টাকা । আলু ও পেঁয়াজ ৩৫-৪০ টাকা কেজি। কাঁচা মরিচের কেজি তো ডাবল সেঞ্চুরিতে। ২৪০ টাকা একদাম জানালেন বিক্রেতা রহিম উদ্দিন। আর ধনেপাতা উপড়ে তোলা গাছ ৪০০ টাকা কেজি।

বাজার করতে আসা একজন শিক্ষক জানালেন, ডিজিটাল বাংলাদেশে ইন্টানেট বিলও এখন নিত্যপ্রয়োজনীয়। প্রতিমাসে ৫৫০ থেকে ১২০০ পর্যন্ত আসে। এছাড়া বাসার ভাড়া, গ্যাস বিদ্যুৎ পানির বিল, কাজের বুয়ার বেতন সব মিলিয়ে বেতানের টাকায় এখন আর পনেরো দিনও চলে না। ধারকর্জ করতে করতে শেষ। সরকারি চাকুরীজীবরা জিপি ফান্ড এবং বিভিন্ন ব্যাংক থেকে সেলারির বিপরীতে অগ্রিম নিয়ে নিয়ে চলছেন। কেউ কেউ দেউলিয়া হয়ে যাচ্ছেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই সংক্রান্ত আরোও খবর
© All rights reserved © 2019 moulvibazar24.com
Customized By BlogTheme