ঢাকা ১১:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজার পূর্বের শত্রুতার জেরধরে আইডিয়াল স্কুল ছাত্র খুন

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০২:১১:৩৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুন ২০২৪
  • / ৪৪০৫ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার॥ মৌলভীবাজার শহরের চুবরা এলাকায় পূর্বের শত্রুতার জেরধরে আইডিয়াল স্কুলের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র জিসান (১২) খুন হয়েছে। এঘটনায় আরও ২ জন আহত হয়েছেন।

রোববার ( ২ জুন) রাত সাড়ে ১০টার দিকে সিলেট এম এ জি ওসমানি হাসপাতালে মৃত্যু হয়। ঘটনার পর অভিযুক্ত আনোয়ারকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, চুবরা এলাকার শরিফুল ইসলামের স্ত্রীর সাথে বেশ কিছুদিন থেকে পরকিয়া চলছিল একই এলাকার ঘাতক আনোয়ারের সাথে। স্বামী শরিফুল একটি ব্যাংকে চাকুরির কারণে হবিগঞ্জের মাধবপুরে থাকতেন। সপ্তাহের বৃহস্পতিবার একবার আসতেন বাড়িতে। আবার শনিবার বিকেলে চলে যেতেন মাধবপুরে। শরিফুলে অনুপস্থিতিতে আনোয়ার প্রায়ই বাসায় যাওয়া-আসা করতো। এনিয়ে এলাকায় বেশ জল্পনা-কল্পনা হয়ে আসছিল ও বাসায় ঢিল মারা হতো। এনিয়ে আনোয়ার শরিফুলের স্ত্রীর প্ররোচনায় ক্ষুব্ধহয়ে রোববার রাতে ধারালে অস্ত্রদিয়ে জিসান, শাওন ও মোবারককে এলোপাথারি আঘাত করে মারাত্মত ভাবে আহত করে। ঘটনার পর শরিফুলের স্ত্রী বাসা ছেড়ে পালিয়ে যায়।
উদ্ধার করে ৩ জনকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে জিসান ও মোবারকের অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এম.এ.জি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ভর্তির পর চিকিৎসক জিসানকে মৃত ঘোষনা করেন। তার মৃত্যৃর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসি আনোয়ারের বাসা ঘেড়াওকরে তাকে আটকে রাখে ও ভাংচুর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে এলাকাবাসি ঘাতককে পুলিশের কাছে সোপোর্দ করেন।

মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি কে.এম নজরুল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, অভিযুক্ত একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হত্যার রহস্য উদঘাটন করা হচ্ছে

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

মৌলভীবাজার পূর্বের শত্রুতার জেরধরে আইডিয়াল স্কুল ছাত্র খুন

আপডেট সময় ০২:১১:৩৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুন ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার॥ মৌলভীবাজার শহরের চুবরা এলাকায় পূর্বের শত্রুতার জেরধরে আইডিয়াল স্কুলের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র জিসান (১২) খুন হয়েছে। এঘটনায় আরও ২ জন আহত হয়েছেন।

রোববার ( ২ জুন) রাত সাড়ে ১০টার দিকে সিলেট এম এ জি ওসমানি হাসপাতালে মৃত্যু হয়। ঘটনার পর অভিযুক্ত আনোয়ারকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, চুবরা এলাকার শরিফুল ইসলামের স্ত্রীর সাথে বেশ কিছুদিন থেকে পরকিয়া চলছিল একই এলাকার ঘাতক আনোয়ারের সাথে। স্বামী শরিফুল একটি ব্যাংকে চাকুরির কারণে হবিগঞ্জের মাধবপুরে থাকতেন। সপ্তাহের বৃহস্পতিবার একবার আসতেন বাড়িতে। আবার শনিবার বিকেলে চলে যেতেন মাধবপুরে। শরিফুলে অনুপস্থিতিতে আনোয়ার প্রায়ই বাসায় যাওয়া-আসা করতো। এনিয়ে এলাকায় বেশ জল্পনা-কল্পনা হয়ে আসছিল ও বাসায় ঢিল মারা হতো। এনিয়ে আনোয়ার শরিফুলের স্ত্রীর প্ররোচনায় ক্ষুব্ধহয়ে রোববার রাতে ধারালে অস্ত্রদিয়ে জিসান, শাওন ও মোবারককে এলোপাথারি আঘাত করে মারাত্মত ভাবে আহত করে। ঘটনার পর শরিফুলের স্ত্রী বাসা ছেড়ে পালিয়ে যায়।
উদ্ধার করে ৩ জনকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে জিসান ও মোবারকের অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এম.এ.জি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ভর্তির পর চিকিৎসক জিসানকে মৃত ঘোষনা করেন। তার মৃত্যৃর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসি আনোয়ারের বাসা ঘেড়াওকরে তাকে আটকে রাখে ও ভাংচুর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে এলাকাবাসি ঘাতককে পুলিশের কাছে সোপোর্দ করেন।

মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি কে.এম নজরুল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, অভিযুক্ত একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হত্যার রহস্য উদঘাটন করা হচ্ছে