1. mrrahel7@gmail.com : Admin : Mahbubur Rahel
  2. samadpress96@gmail.com : Samad Ahmed : Samad Ahmed
মৌলভীবাজার সিলেটসহ ৮৪ জনকে নিয়ে আওয়ামী লীগের ‘মাথাব্যথা’ - moulvibazar24.com
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম

মৌলভীবাজার সিলেটসহ ৮৪ জনকে নিয়ে আওয়ামী লীগের ‘মাথাব্যথা’

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২১

মৌলভীবাজার২৪ ডেস্ক: ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীরা মৌলভীবাজার সিলেটজুড়ে আওয়ামী লীগের জন্য ‘মাথাব্যথার’ কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন। প্রায় প্রতিটি ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে দলেরই অন্য কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছেন। এতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীদের জয় পাওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে। দল থেকে বহিষ্কারের মতো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েও বিদ্রোহী প্রার্থীদের দমাতে পারছে না আওয়ামী লীগ।

গত ১১ নভেম্বর দেশে দ্বিতীয় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সিলেটের ৪৪টি ইউনিয়নও ছিল। এর মধ্যে একটি ইউনিয়নে গণ্ডগোলের কারণে ফলাফল স্থগিত হয়। বাকি ৪৩টি ইউনিয়নের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা ১৯টিতে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা জয় পান ১০টিতে। বাকিগুলোর মধ্যে ১টিতে খেলাফত মজলিসের প্রার্থী, ২টিতে জামায়াতের প্রার্থী এবং ১১টিতে বিএনপি নেতারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে বিজয়ী হন।

দেশে তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচন আগামী ২৮ নভেম্বর। এ ধাপে সিলেট বিভাগের ৭৭টি ইউপি রয়েছে। এর মধ্যে সিলেট জেলার ১৬টি, সুনামগঞ্জের ১৭টি, মৌলভীবাজারের ২৩টি এবং হবিগঞ্জ জেলার ২১টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ হবে।

এ ধাপে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ৮৪ জন বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ১৪ জন, সুনামগঞ্জে ২৮ জন, মৌলভীবাজারে ২৪ জন এবং হবিগঞ্জে ১৮ জন বিদ্রোহী লড়ছেন।

মৌলভীবাজার জেলার ২৩টি ইউনিয়ন রয়েছে তৃতীয় ধাপের ভোটের তালিকায়। এর মধ্যে বড়লেখা উপজেলার ১০টি—বর্ণি, দাসেরবাজার, নিজবাহাদুরপুর, উত্তর শাহবাজপুর, দক্ষিণ শাহবাজপুর, বড়লেখা সদর, তালিমপুর, দক্ষিণভাগ উত্তর, সুজানগর, দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউনিয়ন এবং কুলাউড়া উপজেলার ১৩টি—বরমচাল, ভুগশিমইল, ভাটেরা, জয়চন্ডি, ব্রাক্ষ্মণবাজার, কাদিপুর, কুলাউড়া, রাউতগাঁও, টিলাগাঁও, হাজিপুর, শরিফপুর, পৃথিমপাশা, কর্মধা ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ হবে।

বড়লেখার ৮টিতে এবং কুলাউড়ার ৬টিতে বিদ্রোহী প্রার্থীরা লড়ছেন।বড়লেখার বর্ণি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের জোবায়ের হোসেনকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছেন দুইজন। তারা হলেন- ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শামীম আহমদ, স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও তাঁতী লীগ নেতা আব্দুল মুহিত। দাসেরবাজার ইউনিয়নে নৌকার জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে মাঠে আছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মাহতাব উদ্দিন এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার চক্রবর্তী।উত্তর শাহবাজপুরে দলীয় প্রার্থী রফিক উদ্দিন আহমদকে বিপাকে ফেলেছেন ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি মো. আতাউর রহমান ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মো. মুমিনুর রহমান টনি। দক্ষিণ শাহবাজপুর ইউনিয়নে নৌকার নাহিদ আহমদ বাবলুর বিপক্ষে লড়ছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন।

বড়লেখা সদরে আওয়ামী লীগের সালেহ আহমদ জুয়েলের অস্বস্তি বাড়াচ্ছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সিরাজ উদ্দিন।তালিমপুর ইউনিয়নে নৌকার বিদ্যুৎ কান্তি দাসকে চ্যালেঞ্জ করেছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি বীরমুক্তিযুদ্ধা এখলাছুর রহমান ও আওয়ামী লীগ নেতা সুনাম উদ্দিন । দক্ষিণভাগ উত্তর ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী এনাম উদ্দিনের প্রতিপক্ষ চারজন।

তারা হলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহসভাপতি মো. নজরুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের সদস্য আব্দুল জলিল ফুলু, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশাহিদ আহমদ ও ইউনিয়ন তাঁতী লীগের আহবায়ক আশরাফ হোসেন। দক্ষিণভাগ দক্ষিণ ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী সুলতানা কোহিনুর সারোয়ারীর বিপক্ষে লড়ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আজির উদ্দিন।লাউড়ার টিলাগাঁও ইউপিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল মালিক বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে লড়ছেন। কর্মধা ইউপিতে উপজেলা কৃষক লীগের সহসভাপতি মুহিবুল ইসলাম আজাদ এবং স্থানীয় নেতা মো. মছলু আমিন, ভাটেরা ইউপিতে জেলা যুবলীগ নেতা বর্তমান চেয়ারম্যান এ কে এম নজরুল ইসলাম এবং কামাল ইবনে শহীদ চৌধুরী বিদ্রোহী হয়েছেন। নৌকার বিপক্ষে বরমচাল ইউপিতে খোরশেদ আহমদ খান সুইট, কুলাউড়া সদরে নার্গিস আক্তার বুবলী ও শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী লড়ছেন। দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে শরীফপুর ইউনিয়নে মো. খলিলুর রহমান প্রার্থী হয়েছেন।

এদিকে, দলীয় সিদ্ধান্তের বিপক্ষে গিয়ে যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন, তাদেরকে বহিষ্কারের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে যে ৯ জন বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন, তাদেরকে গতকাল বুধবার বহিষ্কার করা হয়েছে। তাদের দলীয় প্রাথমিক সদস্যপদও বাতিল করা হয়েছে। কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আ স ম কামরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ সংক্রান্ত আরোও নিউজ
%d bloggers like this: