ঢাকা ১২:১৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রীমঙ্গল গোয়াল ঘরের আড়ার সাথে ঝুলছিল বিশাল আকৃতির অজগর

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:০৯:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪
  • / ১৭৬ বার পড়া হয়েছে

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে এক কৃষকের গোয়াল ঘরের আড়ার সাথে ঝুলছিল বিশাল আকৃতির একটি অজগর সাপ। সাপটিকে শ্রীমঙ্গলস্থ বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন কতৃপক্ষ উদ্ধার করে বন বিভাগে হস্তান্তর করেছে।

রোববার (৯ জুন) দুপুরে শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালপুর ইউনিয়নের লামুয়া গ্রামের কৃষক ছাদ মিয়ার গোয়াল ঘরের আড়ার সাথে বিশাল আকৃতির একটি অজগর সাপ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে বাড়ির লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

 

এসময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে সাপটি উদ্ধারের জন্য শ্রীমঙ্গলস্থ বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে খবর দেন। খবর পেয়ে বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক স্বপন দেব সজল গিয়ে অজগর সাপটিকে উদ্ধার করেন।

 

পরে উদ্ধারকৃত অজগরটিকে শ্রীমঙ্গলস্থ বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে বন্যপ্রাণী সেবা ফাুন্ডেশন।

 

সজল দেব জানান, উদ্ধারকৃত অজগর সাপটির ওজন প্রায় ২০ কেজি। লম্বা ১২ ফুট। তিনি বলেন, বনে খাবারের সংকটের কারণে কিছুদিন পরপর খাবারের সন্ধ্যানে বিভিন্ন প্রাণী বন ছেড়ে লোকালয়ে চলে আসে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

শ্রীমঙ্গল গোয়াল ঘরের আড়ার সাথে ঝুলছিল বিশাল আকৃতির অজগর

আপডেট সময় ০৯:০৯:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে এক কৃষকের গোয়াল ঘরের আড়ার সাথে ঝুলছিল বিশাল আকৃতির একটি অজগর সাপ। সাপটিকে শ্রীমঙ্গলস্থ বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন কতৃপক্ষ উদ্ধার করে বন বিভাগে হস্তান্তর করেছে।

রোববার (৯ জুন) দুপুরে শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালপুর ইউনিয়নের লামুয়া গ্রামের কৃষক ছাদ মিয়ার গোয়াল ঘরের আড়ার সাথে বিশাল আকৃতির একটি অজগর সাপ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে বাড়ির লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়েন।

 

এসময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে সাপটি উদ্ধারের জন্য শ্রীমঙ্গলস্থ বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে খবর দেন। খবর পেয়ে বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক স্বপন দেব সজল গিয়ে অজগর সাপটিকে উদ্ধার করেন।

 

পরে উদ্ধারকৃত অজগরটিকে শ্রীমঙ্গলস্থ বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে বন্যপ্রাণী সেবা ফাুন্ডেশন।

 

সজল দেব জানান, উদ্ধারকৃত অজগর সাপটির ওজন প্রায় ২০ কেজি। লম্বা ১২ ফুট। তিনি বলেন, বনে খাবারের সংকটের কারণে কিছুদিন পরপর খাবারের সন্ধ্যানে বিভিন্ন প্রাণী বন ছেড়ে লোকালয়ে চলে আসে।