ঢাকা ১২:২২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডিবির অভিযানে ভারতীয় চিনিসহ আটক-১

নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:৫৪:০১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০২৩
  • / ২৩৪ বার পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) বিশেষ অভিযানে অবৈধভাবে আমদানিকৃত ১১০০ কেজি ভারতীয় চিনিসহ ফাহিম আহমেদ(২৩) নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার (২২ মে) বিকেলে মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা থানাধীন পাকশাইল গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে ভারতীয় চিনিসহ ফাহিমকে আটক করা হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই তোফাজ্জল হোসেন, এএসআই আনোয়ার হোসেনসহ ডিবি পুলিশের একটি দল বড়লেখা উপজেলার ১ নং বর্নি ইউনিয়নের পাকশাইল(দক্ষিণ) গ্রামের জনৈক আব্দুল কুদ্দুসের ভাড়া দোকানের পাশে অভিযান পরিচালনা করে ফাহিম আহমেদকে আটক করেন।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে ৫০ কেজি ওজনের ২২ বস্তা ভারতীয় চিনি এবং কিছু খালি চিনির বস্তা ও বস্তা সেলাই করার একটি মেশিন জব্দ করা হয়।

আটককৃত ফাহিম আহমেদ সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট থানাধীন মনরতল গ্রামের মৃত আপ্তাব আলীর ছেলে।

আটককৃত ফাহিমসহ কয়েকজন মিলে ভারত থেকে চোরাই পথে কমদামে ভারতীয় চিনি আনে। পরবর্তীতে এই চিনি ভারতীয় বস্তা থেকে বাংলাদেশী ফ্রেস কোম্পানির চিনির বস্তায় ভরে বাংলাদেশী চিনি হিসেবে বিক্রি করে।

চোরাচালানের মাধ্যমে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে ভারতীয় পণ্য বাংলাদেশ আমদানি করার অপরাধে আটককৃত ফাহিম আহমেদ এবং পলাতক একজনসহ অজ্ঞাত নামা ২/৩ জনের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫(বি) ধারায় বড়লেখা থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

ডিবির অভিযানে ভারতীয় চিনিসহ আটক-১

আপডেট সময় ০৯:৫৪:০১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০২৩

বিশেষ প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) বিশেষ অভিযানে অবৈধভাবে আমদানিকৃত ১১০০ কেজি ভারতীয় চিনিসহ ফাহিম আহমেদ(২৩) নামে একজনকে আটক করা হয়েছে।

সোমবার (২২ মে) বিকেলে মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা থানাধীন পাকশাইল গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে ভারতীয় চিনিসহ ফাহিমকে আটক করা হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই তোফাজ্জল হোসেন, এএসআই আনোয়ার হোসেনসহ ডিবি পুলিশের একটি দল বড়লেখা উপজেলার ১ নং বর্নি ইউনিয়নের পাকশাইল(দক্ষিণ) গ্রামের জনৈক আব্দুল কুদ্দুসের ভাড়া দোকানের পাশে অভিযান পরিচালনা করে ফাহিম আহমেদকে আটক করেন।

এসময় ঘটনাস্থল থেকে ৫০ কেজি ওজনের ২২ বস্তা ভারতীয় চিনি এবং কিছু খালি চিনির বস্তা ও বস্তা সেলাই করার একটি মেশিন জব্দ করা হয়।

আটককৃত ফাহিম আহমেদ সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট থানাধীন মনরতল গ্রামের মৃত আপ্তাব আলীর ছেলে।

আটককৃত ফাহিমসহ কয়েকজন মিলে ভারত থেকে চোরাই পথে কমদামে ভারতীয় চিনি আনে। পরবর্তীতে এই চিনি ভারতীয় বস্তা থেকে বাংলাদেশী ফ্রেস কোম্পানির চিনির বস্তায় ভরে বাংলাদেশী চিনি হিসেবে বিক্রি করে।

চোরাচালানের মাধ্যমে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে ভারতীয় পণ্য বাংলাদেশ আমদানি করার অপরাধে আটককৃত ফাহিম আহমেদ এবং পলাতক একজনসহ অজ্ঞাত নামা ২/৩ জনের বিরুদ্ধে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫(বি) ধারায় বড়লেখা থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।