newspaper

মৌলভীবাজারে হিফজুল কোরআন ইনস্টিটিউট এর বার্ষিক ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

0 432

ষ্টাফ রিপোর্টার::  মৌলভীবাজার শহরের ফিরোজাভানু হিফজুল কোরআন ইনস্টিটিউট এর বার্ষিক ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (৮ জানুয়ারি) রাতে মাইজপাড়া  এলাকায় মাদরাসা প্রঙ্গনে এ বার্ষিক ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

ওয়াজ শেষে পাগড়ি বিতরণ মাহফিলে মাদরাসার হিফজ সমাপনী ৬ জন ছাত্রকে পাগড়ি প্রদান করা হয়। হাফিজ মোঃ মুছাদ্দিক খান, হাফিজ মোঃ আমিন খান, হাফিজ মোঃ মঞ্জিল আহমদ তায়েফ, হাফিজ মোঃ আব্দুল করিম, হাফিজ মোঃ আব্দুল আহাদ খান, হাফিজ মোঃ বিল্লাল হুসেন। এছাড়াও মাহফিলে প্রধান আকর্ষণ হিসেবে মাদরাসার ২ বছরে কৃতিত্বের সাথে হিফজ সম্পন্নকারী একজন মেধাবী ছাত্রকে শিক্ষাবৃত্তি হিসেবে নগদ ২৫ হাজার টাকা পুরস্কার প্রদান করা হয়।

পাগড়ি ও পুরস্কার প্রদান করেন হযরত মাওঃ ছালিক আহমদ, মুহাদ্দিস, সৎপুর কামিল মাদরাসা। পাগড়ি ও পুরষ্কার দাতাঃ আলহাজ্ব মোঃ সফিকুর রহমান প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক ফিরোজাভানু হিফজুল কোরআন ইনস্টিটিউট। পুরস্কৃত ছাত্রের নামঃ হাফিজ মোহাম্মদ শামসুর রহমান (১৪) পিতাঃ মোহাম্মদ আব্দুর রহমান গ্রামঃ কুঞ্জবন ডাকঃ সিককা উপজেলাঃ শ্রীমঙ্গল জেলাঃ মৌলভীবাজার।

হাফিজ মোহাম্মদ শামসুর রহমান অত্র মাদরাসায় ১০ জানুয়ারী, ২০১৬ ইংরেজিতে সবক শুরু করে এবং হিফজ সম্পন্ন করে ২০ ডিসেম্বর, ২০১৭ সনে। মাত্র ১ বছর ১১ মাস ১০ দিনে সে সফলতার সাথে হিফজ সম্পন্ন করে।

ফিরোজাভানু হিফজুল কোরআন ইনস্টিটিউট মাসরাসার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয় ১ মোহররম ১৪৩৫ হিজরি, ৫ নভেম্বর ২০১৩ সালে ৯ জন ছাত্র নিয়ে। বর্তমানে মাদরাসার ছাত্র সংখ্যা ২২ এবং ভর্তির নিয়মনুযায়ী প্রতি বছর হিফজ বিভাগে ২৫ জনের অনধিক ছাত্র নেয়া হয় না। এ পর্যন্ত অত্র মাদরাসা থেকে হিফজ সম্পন্ন করে মোট ১০ জন ছাত্র।

মাহফিলে উপস্থিতি ছিলেন মাহফিলের প্রধান অতিথি হযরত মাওঃ ছালিক আহমদ, মুহাদ্দিস, সৎপুর কামিল মাদরাসা, আলহাজ্ব মোঃ সফিকুর রহমান, প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক, অত্র মাদরাসা এবং হাফিজ অলিউর রহমান (প্রধান শিক্ষক), হাফিজ মাওঃ আব্দুল হাফিজ (সহকারি শিক্ষক), মাওঃ সোহেল কবির জুয়েল, মোঃ বেলাল আহমদ, মাওঃ শেখ মোঃ শাহ্ আলম সহ মাদরাসা কমিটির সদস্যবৃন্দ এবং এলাকার অন্যান্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

বুধবার  মৌলভীবাজারের মানবতাবিরোধী অপরাধীর রায়

 

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার শামসুল হোসেন তরফদারসহ পাঁচ জনের মামলার রায়ের জন্য আগামীকাল বুধবার (১০ জানুয়ারি) দিন ধার্য করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহীনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এই দিন ঠিক করেন।

এর আগে গত ২০ নভেম্বর উভয়পক্ষের শুনানি শেষে মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ রাখেন আদালত। এই রায়ের জন্য এই দিন ঠিক করেন আদালত।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন, প্রসিকিউটর আবুল কালাম ও রেজিয়া সুলতানা চমন। আসামিদের পক্ষে ছিলেন রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী গাজী এম এইচ তামিম।

২০১৬ সালের ৮ ডিসেম্বর মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার শামসুল হোসেন তরফদারসহ পাঁচ রাজাকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মধ্যে দিয়ে এ মামলায় বিচার শুরুর নির্দেশ দেন ট্রাইব্যুনাল। আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা,গণহত্যা,আটক,অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটের পাঁচটি অভিযোগ গঠন করা হয়।

অভিযুক্ত ৫ জন হলেন- শামসুল হোসেন তরফদার, মোবারক মিয়া, নেসার আলী, ইউনুস আহমেদ ও ওজায়ের আহমেদ চৌধুরী। ইউনুস আহমেদ ও ওজায়ের আহমেদ চৌধুরী ছাড়া বাকিরা পলাতক।

এর আগে ২০১৬ সালের নভেম্বরে এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি শেষে আদেশের জন্য আজকের দিন ধার্য করেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। একই বছরের ২৬ মে এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে ট্রাইব্যুনালে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করা হয়। ২০১৪ সালের ১২ অক্টোবর আসামিদের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে তদন্ত সংস্থা।

গত বছরের ১৩ অক্টোবর আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করলে ওইদিন বিকেলেই রাজনগর উপজেলার গয়াসপুর গ্রামের ওজায়ের আহমেদ চৌধুরীকে (৬০) মৌলভীবাজার শহরের চৌমোহনা থেকে ও সোনাটিকি গ্রামের মৌলভি ইউনুছ আহমদকে (৭০) তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এরপর ২০ জানুয়ারি তাদের বিরুদ্ধে তদন্তের চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা।