প্রথম নারী সভাপতি পেল বিজিএমইএ

284

insurance news more article

তৈরি পোশাক শিল্পমালিক ও রপ্তানিকারকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র পরিচালনা পর্ষদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পেয়েছেন রুবানা হকের নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত ফোরাম প্যানেল। এর ফলে এই সংগঠনের প্রথম নারী সভাপতি হচ্ছেন মোহাম্মদী গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রুবানা। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রয়াত মেয়র আনিসুলের স্ত্রী রুবানা। গার্মেন্ট ব্যবসায়ী আনিসুলও এক সময় এই সংগঠনের সভাপতি ছিলেন।

শনিবার রাত ৯টার পর ভোট গণনা শেষে বিজিএমইএ’র নির্বাচনী বোর্ডের দায়িত্বে থাকা মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এমসিসিআই) সভাপতি ব্যারিস্টার নিহাদ কবির ফলাফল ঘোষণা করেন।

বিজিএমইএর পরিচালক পদের সংখ্যা ৩৫। তবে চট্টগ্রাম অঞ্চলে ৯ প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পরিচালক নির্বাচিত হওয়ায় শনিবার ঢাকা অঞ্চলের ২৬ পরিচালক পদের জন্য ভোট হয়েছে। ২৬ পরিচালক পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছিলেন দুই প্যানেলের ৪৪ জন প্রার্থী। তার মধ্যে সম্মিলিত–ফোরামের ২৬ ও স্বাধীনতা পরিষদের ছিলেন ১৮ জন প্রার্থী। সম্মিলিত–ফোরামের সবাই বিজয়ী হন।

মোট ১ হাজার ৯৫৬ ভোটারের মধ্যে ১ হাজার ৪৯২ জন ভোট দিয়েছেন, অর্থাৎ ভোট পড়েছে ৭৬ শতাংশের মতো। ঢাকার ১ হাজার ৫৯৭ ভোটারের মধ্যে ১ হাজার ২০৪ জন এবং চট্টগ্রামের ৩৫৯ ভোটারের মধ্যে ২৮৮ জন ভোট দিয়েছেন। তবে ৯৯টি ভোট বাতিল হয়েছে। রাত সাড়ে নয়টার দিকে ভোট গণনা শেষ হয়েছে।

বিজিএমইএর নির্বাচনকেন্দ্রিক বড় দুই জোট সম্মিলিত পরিষদ ও ফোরাম সমঝোতার মাধ্যমে একটি প্যানেল দিয়েছে। তার বিপরীতে নতুন জোট স্বাধীনতা পরিষদ খণ্ডিত প্যানেল দেওয়ায় সংগঠনটির নেতৃত্ব নির্বাচনে ৬ বছর পর ভোট হয়েছে। তবে স্বাধীনতা পরিষদ চট্টগ্রাম অঞ্চলে প্রার্থী না দেওয়ায় সেখানে সম্মিলিত–ফোরামের ৯ প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পরিচালক নির্বাচিত হয়েছেন।

চূড়ান্ত ফলাফলে দেখা গেছে, রুবানা হক ১২৮০ ভোট, আব্দুর রহিম ১২৯৫ ভোট, মো. নাছির উদ্দিন ১২২৮ ভোট, আসিফ ইব্রাহিম ১১২৭ ভোট, আরশাদ জামাল দিপু ১২৬৮ ভোট, কে এম রফিকুল ইসলাম ১২৬৭ ভোট, মশিউল আজম ১২৫৬ ভোট, ইনামুল হক খান ১২৬৩ ভোট, রেদওয়ান সেলিম ১২২৭ ভোট, কামাল উদ্দিন ১২২৪ ভোট, মোহাম্মদ নাছির ১২২৩ ভোট, সাজ্জাদুর রহমান মৃধা ১২২১ ভোট, শহীদুল হক মুকুল ১২০৭ ভোট, মাসুদ কাদের মনা ১১৮৭ ভোট, ইকবাল হামিদ কোরাইশী ১২০১ ভোট, ফয়সাল সামাদ ১১২৪ ভোট, মুনির হোসাইন ১২১৮ ভোট, এ কে এম বদিউল আলম ১২১৬ ভোট, মিরান আলী ১২৫৭ ভোট, মোহাম্মদ আবদুল মোমেন ১২০৮ ভোট, মোশাররফ হোসেন ঢালী ১১৭৪ ভোট, শিহাব উদ্দোজা চৌধুরী ১১৯৬ ভোট, মহিউদ্দিন রুবেল ১২৩৭ ভোট, এসএম মান্নান কচি ১১৭৩ ভোট, শরীফ জহির ১১৭৩ ভোট এবং নজরুল ইসলাম ১১৪৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

চট্টগ্রাম অঞ্চলে এই প্যানেলের বিজয়ীরা হলেন- মোহাম্মদ আব্দুস সালাম, এ এম চৌধুরী, এ এম মাহবুব চৌধুরী, এনামুল আজিজ চৌধুরী, মোহাম্মদ আতিক, খন্দকার বেলায়েত হোসেন, অঞ্জন শেখর দাশ, মোহাম্মদ মুছা ও মোহাম্মদ মেরাজ-ই-মোস্তফা।

অপরদিকে স্বাধীনতা পরিষদ প্যানেলের জাহাঙ্গীর আলম ৪২২ ভোট, সাইফুল ইসলাম ৩০৭ ভোট, দেলোয়ার হোসেন ২৭৫ ভোট, খন্দকার ফরিদুল আকবর ২৬৩ ভোট, হুমায়ুন রশিদ ২৫০ ভোট, কাজী আব্দুস সোবহান ২৪৭ ভোট, শওকত হোসেন ২৪৩ ভোট, শরীফুল আলম ২৩৭ ভোট, মেহয্যাবীন মমতাজ ২৩৩ ভোট, হোসেন সাব্বির মাহমুদ ২২৭ ভোট, আয়েশা আক্তার ২২০ ভোট, মাহমুদ হোসেন ২১৩ ভোট, ওমার নাজিম হেকমত ২১২ ভোট, জাহাঙ্গীর কবির ২১০ ভোট, জাহিদ হাসান ২০৮ ভোট, ওয়ালীউল্যাহ ১৯৯ ভোট ও জহিরুল ইসলাম ১৯৭ ভোট পেয়েছেন।

insurance news more article

আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার সময় বিজিএমইএর বর্তমান সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, নির্বাচন পরিচালনা বোর্ডের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলামিন, পরিচালনা বোর্ডের সদস্য ব্যারিস্টার নিহাদ কবীর, সম্মিলিত ফোরামের প্যানেল নেতা রুবানা হক ও স্বাধীনতা পরিষদের প্যানেল নেতা জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন