চার ব্রিটিশ বাংলাদেশি নারী যুক্তরাজ্যে এমপি হওয়ার লড়াইয়ে

458

insurance news more article

যুক্তরাজ্যের বর্তমান পার্লামেন্টে আইন প্রণেতা হিসেবে রয়েছেন ৩ ব্রিটিশ বাংলাদেশি নারী রোশনারা আলী, টিউলিপ সিদ্দিক ও রূপা হক। পরবর্তী সাধারণ নির্বাচনেও লেবার পার্টির এই তিন এমপি’র মনোনয়ন চূড়ান্ত। তাদের বাইরে আরও ৪ জন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নারী এমপি হওয়ার লড়াইয়ে নেমেছেনদের মধ্যে ডা. আনোয়ারা আলী কনজারভেটিভ পার্টি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন। লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন সিলেটের রাবিনা খান ও মৌলভীবাজারের বাবলিন মল্লিক। এদিকে সুনামগঞ্জে জন্ম নেওয়া আফসানা বেগম লেবার পার্টির চূড়ান্ত মনোনয়ন পাওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন।

যুক্তরাজ্যে সবশেষ সাধারণ নির্বাচন হয়েছে ২০১৭ সালের ৮ জুন। সেই হিসেবে ২০২২ সালের ৫ মে পরবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। তবে ব্রেক্সিট সংকটকে কেন্দ্র করে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ১২ ডিসেম্বর সাধারণ নির্বাচন করতে আগ্রহী। নির্বাচন এগিয়ে আনতে পার্লামেন্টে ভোটাভুটির আয়োজন করতে চান তিনি। এদিকে বিরোধী দল লেবার পার্টির পক্ষ থেকে আগেই বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের উদ্যোগ নিলে তাতে সম্মত হবে তারা। সব মিলে ব্রিটেনে এখন নির্বাচনি হাওয়া বইতে শুরু করেছে।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রোশনারা আলী লন্ডনের বেথনাল গ্রিন ও বো আসন থেকে লেবার পার্টির হয়ে নির্বাচিত হয়ে আসছেন সেই ২০১০ সাল থেকে। ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এই প্রথম নারী আইনপ্রণেতা এবারও তার দলের চূড়ান্ত মনোনয়ন পেয়েছেন। বাংলাদেশি অধ্যুষিত তার নির্বাচনি এলাকাটি লেবার পার্টির নিরাপদ আসন।

‌প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বোন শেখ রেহানার মেয়ে টিউ‌লিপ রিজওয়ানা সি‌দ্দিক ২০১৫ সা‌ল থে‌কে লন্ড‌নের হ্যাম‌স্টেড ও কিলবার্ন আসন থে‌কে নির্বাচিত হয়ে আসছেন। প্রথমবার নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই পার্লামেন্টের ভেতরে-বাইরে সাড়া ফেল‌তে সক্ষম হন ক্যাম‌ডেনের সা‌বেক এই কাউন্সিলর। এবারও নিজ দল থেকে চূড়ান্ত মনোনয়ন পেয়েছেন এই লেবার প্রার্থী।

স্পষ্টবাদী হিসেবে পরিচিত আরেক ব্রিটিশ বাংলাদেশি রূপা আশা হক ২০১৫ সালে একই দল থেকে লন্ডনের ইলং সেন্ট্রাল ও একটন আসন থেকে প্রথমবার আইনপ্রণেতা নির্বাচিত হন। আগামী নির্বাচনে তার প্রার্থিতাও চূড়ান্ত করেছে লেবার পার্টি।

রোশনারা-টিউলিপ আর রূপা ছাড়াও এবার লন্ডনের হ্যারো ওয়েস্ট আসন থেকে কনজারভেটিভ পার্টির মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর ডা. আনোয়ারা আলী। সবশেষ নির্বাচনে একই দল থেকে টাওয়ার হ্যামলেটস-এর প্রার্থী ছিলেন তিনি। তার পরিবারের আদি নিবাস সি‌লে‌টের গোলাপগঞ্জ উপ‌জেলায়। রবিবার তিনি ব‌লেন,‌ তার আসন‌টি কনজার‌ভে‌টিভ পা‌র্টির ভোটব্যাংক হি‌সে‌বে প‌রি‌চিত। তি‌নি প্র‌তি‌দিনই নি‌জের নির্বাচনি এলাকার মানু‌ষের ঘ‌রে ঘ‌রে ছুট‌ছেন। জ‌য়ের ব্যাপারে তি‌নি আশাবাদী।

লন্ড‌নের কেন‌জিংটন অ্যান্ড চেল‌সি আসন থে‌কে লিবা‌রেল ডে‌মোক্র্যাটিক পা‌র্টির ম‌নোনয়ন পে‌য়ে‌ছেন কাউন্সিলর রা‌বিনা খান। তি‌নি টাওয়ার হ্যাম‌লেট‌সের সর্ব‌শেষ নির্বাচ‌নে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার মূল লড়াই‌য়ে ছি‌লেন। সি‌লে‌টের গোলাপগঞ্জ উপ‌জেলা থেকে যুক্তরাজ্যে স্থায়ী হওয়া রাবিনা বলেছেন, জয়ী হওয়ার জন্য দলীয় ম‌নোনয়ন চূড়ান্ত হওয়ার পর থেকেই সার্বক্ষ‌ণিক কাজ কর‌ছেন তিনি।

একই দল থেকে কার্ডিফ সেন্ট্রাল আসনের মনোনীত প্রার্থী মৌলভীবাজারের ড. বাবলিন মল্লিক। দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘এবারের নির্বাচন ব্রিটিশ রাজনীতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অতীতের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আমরা এশিয়ান মুসলিম ও বাঙালি ভোটারদের মন জয় করতে পারলে বিজয় নিশ্চিত।

পূর্ব লন্ড‌নের পপলার ও লাইম হ‌াউজ আসনে লেবার পা‌র্টির দলীয় ম‌নোনয়ন প্র‌ক্রিয়ার সব ধাপ পেরিয়ে চূড়ান্ত মনোনয়নের অপেক্ষায় রয়েছেন আফসানা বেগম। সুনামগ‌ঞ্জের জগন্নাথপুর থেকে যুক্তরাজ্যে স্থায়ী আবাস গড়া আফসানা জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘নির্বা‌চিত হ‌লে পপলার লাইম হাউ‌জের পি‌ছি‌য়ে পড়া উন্নয়ন কার্যক্রমকে বেগবান কর‌বো।’

 

insurance news more article

সূত্র বাংলা ট্রিবিউন