প্রেমিকের সাথে ঘুরতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রী, আটক ৩

925

সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে প্রেমিকের সাথে ঘুরতে গিয়ে দশম শ্রেণির এক ছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযোক্ত ৩ বখাটেকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকালে ওই স্কুলছাত্রীরে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরণ করা য়ে। এর আগে বুধবার বিকেলে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

আটককৃতরা হলো- চুনারুঘাট উপজেলার আমতলী গ্রামের আবুল হাসিমের ছেলে রুবেল মিয়া (২৪), তার বন্ধু রহমতাবাদ ষাড়েরকোণা গ্রামের ছিদ্দিক আলীর ছেলে মানিক মিয়া (৩০) ও একই গ্রামের নওশেদ আলীর ছেলে হারিছ মিয়া (৩৫)।

জানা যায়, বুধবার দুপুরে মাধবপুর লোকনাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির জনৈক ছাত্রী তার প্রেমিকের সাথে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে ঘুরতে যান। এক পর্যায়ে বিকেলের দিকে ৬ বখাটে প্রেমিককে জোরপূর্বক আটকে রেখে স্কুলছাত্রীকে মুখ চেপে গহীণ অরণ্যে নিয়ে গণধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে। সন্ধ্যার দিকে তারা চুনারুঘাট থানায় মৌখিকভাবে অভিযোগ দিলে রাতেই অভিযান চালিয়ে ৩ অভিযুক্তকে আটক করে।

এ ব্যাপারে চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাজমুল হক জানান, আটককৃতদের রাতভর থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এছাড়া ভিকটিমকে বৃহস্পতিবার সকালে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত অন্যান্য অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান চলছে।