newspaper

রাজনগরে আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি পুলিশের ভূমিকা নিয়ে জনমনে ক্ষোভ

0 14
ষ্টাফ রিপোর্টার: মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলায় গত ৬ মাসে দুটি আলোচিত হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়। সেইসঙ্গে ৩টি অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। অজ্ঞাত পরিচয়ের লাশগুলোর কোনো পরিচয় পাওয়া যায়নি কিংবা কোনো ক্লু উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। এছাড়া আশঙ্কাজনক হারে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই ও মাদক ব্যবসা বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশেষ করে ৪ মাসে অর্ধশত গরু চুরি হওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন সাধারণ কৃষক।
এ সময় ৪টি ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে ৭৫ ভরি স্বর্ণালংকার, প্রায় ৭ লাখ টাকাসহ মালামাল লুট করেছে। এদিকে গত তিন মাস থেকে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় চুরি-ডাকাতি বিশেষ করে গরু চুরি বৃদ্ধির ঘটনায় উদ্বেগ জানানো হলেও কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। তবে, রাজনগর থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বণিক ঈদের কারণে ক্রাইম বেড়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করছি।’ খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ৪ জুলাই রাতে রাজনগর উপজেলা পরিষদের ১শ’ গজের মধ্যে নাজমা খানম নামে এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকার বাসার ৩ ইউনিটে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ১৫-১৬ জনের ডাকাতদল আগ্নেয়াস্ত্রের মুখে সবাইকে জিম্মি করে ২২ ভরি স্বর্ণালংকার, ৩ লাখ টাকা ও মোবাইল ফোনসেটসহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এর আগে উপজেলার মুন্সিবাজার ইউনিয়নের মিয়ারকান্দি গ্রামের সোলেমান মিয়ার বাড়িতে ২৬ মে রাতে ১৫-২০ জনের ডাকাতদল আগ্নেয়াস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ৪০ ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ দেড় লক্ষাধিক টাকা লুটে নেয়। পালিয়ে যাওয়ার সময় গ্রামবাসীরা ধাওয়া করলে ডাকাতরা ১৮-২০ রাউন্ড গুলি ছুড়ে। এতে ৯ জন গুলিবিদ্ধ হন। ২১ মে রাতে উপজেলার পাঠানটুলা গ্রামে এক বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ১২-১৫ জনের ডাকাতদল আগ্নেয়াস্ত্রের ভয় দেখিয়ে বাড়ির লোকজনদের জিম্মি করে সাড়ে ১৫ ভরি স্বর্ণালংকার, নগদ ১৫ হাজার টাকা ও ১টি মোবাইলফোন লুট করে নিয়ে যায়।
১ জুন বিকাল সাড়ে তিনটার সময় মৌলভীবাজার-কুলাউড়া সড়কের পূর্ব কদমহাটা এলাকায় বাগান ম্যানেজারের গাড়ির গতিরোধ করে মরিচের গুঁড়া ছিটিয়ে রাজনগর চা বাগানের ১২ লাখ টাকা ছিনতাই করে দুর্বৃত্তরা। ১৩ আগস্ট মৌলভীবাজার কুলাউড়া সড়কের ভাঙ্গারহাট রাস্তার সামনে সুরাইয়া বিবির কাছ থেকে নগদ ৭৫ হাজার টাকা দুর্বৃত্তরা লুট করে নিয়ে যায়। এছাড়াও ১৮ আগস্ট রাতে সদর ইউনিয়নের মানিরপাড়া গ্রামের তপন দেবের বাড়ি থেকে ৩ ভরি স্বর্ণ, নগদ টাকা নিয়ে যায়। অপরদিকে নিয়মিত চুরি হচ্ছে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও মোটরসাইকেল। ৪ আগস্ট রাজনগর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান সোহেলের ও ১০ আগস্ট সহসভাপতি আবদুল আজিজের দুটি মোটরসাইকেল চুরি হয়। উভয় ঘটনায় থানায় মামলা হলেও পুলিশ কোনো ক্লু উদ্ধার করতে পারেনি। ১৯ মে টেংরা ইউনিয়নের কাছাড়ী করিমপুর গ্রামের কলেজছাত্রী শাম্মী আখতার ও ১৭ জুন প্রবাসীর স্ত্রী বাবলী আখতারকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। এ দুটি হত্যাকাণ্ড ছাড়াও ১৪ জানুয়ারি রাজনগর চা বাগান, ২৬ মে মুন্সিবাজার ইউনিয়নের সুনাটিকি গ্রামের পশ্চিম পাশের শিঙ্গুয়ার বিল ও ১০ জুন দুপুরে রাজনগর-বালাগঞ্জ সড়কের ভুরবুরি ব্রিজের দক্ষিণ পাশের খাল থেকে ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয় লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ জানান, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বলতে দেশের অন্যান্য উপজেলার দিকে তাকালে সে তুলনায় এখানে বেশ ভালোই বলতে হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.